আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 57 মিনিট আগে

দেশে খুন, ধর্ষণসহ যতো সামাজিক অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে, এসবের পেছনে সরকারের কোন না কোন প্রভাবশালী ব্যক্তির সমর্থন রয়েছে, বনানীর হোটেল রেইনটিতে ধর্ষণের ঘটনা উল্লেখ করে এমন মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ।

moudud ahmed bnp

শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত এক আলোচনা সভায় বনানীর ধর্ষণের ঘটনার বিষয়ে এই মন্তব্য করেন। 'দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া জিয়া ঘোষিত ভিশন- ২০৩০ আগামী দিনে রাজনীতি আমাদের করণীয়' শীর্ষক এই আলোচনা সভায় সভপতিত্ব করেন আয়োজক সংগঠনটির সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার আশরাফ উদ্দিন বকুল।

বিএনপির এই প্রভাবশালী নেতা বলেন, ' সারাদেশে দৈনিক অন্তত ১২টি খুনের ঘটনা ঘটছে। সামাজিক অপরাধসহ সব ধরনের সহিংসতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বনানীর ওই চার তারা হোটেলটির মালিক কে সেটা এখন সবাই জানে। বাংলাদেশে যতো ধরনের অপরাধ হচ্ছে তার পেছনে সরকারের কোন না কোন প্রভাবশালী মানুষের হাত রয়েছে।'

মওদুদ আহমদ বলেন, 'দেশে শান্তি নেই, বেড়েছে সামাজিক অস্থিরতা। সরকার পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছে বিরোধীদলকে পেটাতে। বিরোধীদলকে কোন ধরনের জনসভা করতে দেবে না তারা। আজ আমরা জনসভা করতে পারি না। অথচ সরকার বলে দেশে বিএনপি নেই। সরকারের উদ্দেশ্যে আমি বলবো, দেশের যেকোন জায়গায় বিএনপিকে জনসভা করতে দিন, আপনারও করেন। এরপর তুলনা করেন কাদের জনসভায় সাধারণ মানুষের সম্পৃক্ততা বেশি।'

বিএনপি জাতীয় নির্বাচন করার জন্য প্রস্তুত বলে ঘোষণা দেন এই নেতা। তিনি বলেন, 'জনগণের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দিন। আমরা আবারো বলছি, যেকোন নামে হোক নির্বাচনটা নিরপেক্ষ হোক। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগের পরাজয় নিশ্চিত। এজন্যই সুষ্ঠু নির্বাচনে আপনারা ভয় পান।'

বিচারবিভাগ প্রসঙ্গে ব্যারিস্টার মওদুদ বলেন, 'বিচারকরা স্বাধীনভাবে তাদের দায়িত্ব পালন করছেন কিনা এ ব্যাপারে জনমনে অনেক প্রশ্ন রয়েছে। বিএনপি ক্ষমতায় এলে বিচার বিভাগ নিয়ে এসব প্রশ্ন আর থাকবে না। প্রধান বিচারপতি বিচার বিভাগের স্বাধীনতা প্রতিষ্ঠিত করতে লড়াই করছেন। তার প্রশংসা করতেই হয়।'

Add comment

Security code
Refresh