আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 11 মিনিট আগে

নানা জল্পনা-কল্পনার পর আজ আনুষ্ঠানিকভাবে মৎস্য অধিদপ্তরের হাতে ইলিশের জিওগ্রাফিক্যাল ইনডিকেশন (জিআই) নিবন্ধনের সনদ তুলে দেয়া হয়েছে। রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই সনদ প্রদান করা হয়।

hilsha fish

পেটেন্ট ডিজাইন ও ট্রেডমার্কস অধিদপ্তর আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুর হাত থেকে মৎস্য অধিদপ্তরের পক্ষে এর মহাপরিচালক সৈয়দ আরিফ আজাদ এই সনদ গ্রহণ করেন।

এর মাধ্যমে জামদানির পর দ্বিতীয় পণ্য হিসেবে ইলিশ মাছের ভৌগোলিক নির্দেশক বা জিআই সনদ পেল বাংলাদেশ। এই সনদের ফলে সারা বিশ্বে ইলিশ এখন বাংলাদেশের পণ্য বলে স্বীকৃতি পাবে।

পেটেন্ট ডিজাইন ও ট্রেডমার্ক অধিদপ্তরের রেজিস্টার সানোয়ার হোসেন জানান, ২০১৬ সালের ১৩ নভেম্বর আন্তর্জাতিকভাবে ইলিশের একক মালিকানা পেতে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে জিআই নিবন্ধনের জন্য আবেদন করা হয়।

আন্তর্জাতিক স্বত্ত্ব বিষয়ক সংস্থা ওয়াইপিও'র শর্ত অনুযায়ী, ইলিশের জন্ম ও বিস্তারসহ যাবতীয় তথ্য ও প্রমাণ অধিদপ্তরের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এ সব তথ্য যাচাই বাছাই শেষে চলতি বছরের ১ জুন নিজস্ব জার্নালে ৪৯ পৃষ্ঠার একটি নিবন্ধ প্রকাশ করে পেটেন্ট ডিজাইন ও ট্রেডমার্ক অধিদপ্তর।

ভারত ও মিয়ানমার জিআই নিবন্ধনের ব্যাপারে আপত্তি জানাবে বলে আশঙ্কা ছিলো, কিন্তু নিবন্ধ প্রকাশের দুই মাস কেটে গেলেও কোথাও থেকে কোন আপত্তি ওঠেনি। তাই কোনো ঝামেলা ছাড়াই ইলিশ বাংলাদেশের নিজস্ব পণ্য হিসেবে নিবন্ধিত হয়েছে।

Add comment

Security code
Refresh


advertisement