আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 11 মিনিট আগে

মোবাইল ফ্লেক্সিলোডের মতোই গ্রামীণফোনের মাধ্যমে বিদ্যুৎ কিনতে পারবেন রাজধানীর গ্রাহকরা। এ লক্ষ্যে সম্প্রতি রাজধানীর বিদ্যুৎ ভবনে ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির (ডিপিডিসি) বোর্ড রুমে প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে গ্রামীণফোনের একটি চুক্তি হয়। নতুন এই সুবিধাটি ইতোমধ্যে আজিমপুর ও লালবাগ এলাকায় চালু হয়েছে।

electricity generation

প্রাথমিক পর্যায়ে গ্রামীণফোনের মাত্র দুটি রিটেইলার থেকে গ্রাহকরা বিদ্যুৎ কিনতে পাবেন। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত পয়েন্ট অব সেল বা পস মেশিন দিয়ে বিদ্যুৎ কার্ড রিচার্জ করা যাবে। সুবিধাটি শুধুমাত্র প্রি-পেইড বিদ্যুৎ গ্রাহকদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।

কার্ডের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সরবরাহ করে নতুন যুগের সূচনা করেছে ডিপিডিসি। তবে গ্রাহকরা অভিযোগ করেছেন প্রি-পেইড কার্ড রিচার্জ করতে গিয়ে ব্যাংক ও ডিপিডিসির নির্ধারিত বুথে লম্বা লাইনে অতিরিক্ত সময় চলে যাচ্ছে। ফলে ভোগান্তি এড়াতে ফ্লেক্সিলোডের মতো বিদ্যুৎ বেচাকেনা করছে ডিপিডিসি।

ডিপিডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী বিকাশ দেওয়ান বলেন, 'ডিপিডিসির আওতার মধ্যে থাকা সকল এলাকায় বিদ্যুৎ গ্রাহকের সেবার মান উন্নয়নে প্রি-পেইড মিটার স্থাপন করা হচ্ছে। নতুন পদ্ধতির মধ্য দিয়ে গ্রাহক সেবার নতুন দ্বার উন্মোচিত হলো।'

জানা গেছে, চুক্তি অনুষ্ঠানে ডিপিডিসির কাছ থেকে মোট পাঁচ কোটি টাকার বিদ্যুৎ কিনে গ্রামীণফোন। এছাড়াও ফোন কোম্পানিটির দুজন ভেন্ডর গ্রামীণফোন থেকে ৫০ হাজার টাকার বান্ডেল কেনেন। গ্রাহক এই সুবিধা গ্রহণ করতে চাইলে ১০০ থেকে ৪০০ টাকা পর্যন্ত রিটেইলারকে অতিরিক্ত পাঁচ টাকা দিতে হবে। তবে পাঁচ হাজার টাকার উপরে যে কোনো পরিমাণের জন্য ২৫ টাকা বাড়তি দিতে হবে।

চুক্তি স্বাক্ষরের সময় উপস্থিত ছিলেন, 'বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব ও ডিপিডিসির পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ড. আহমেদ কায়কাউস, বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন গ্রামীণফোনের চিফ করপোরেট অ্যাফেয়ার্স অফিসার মাহমুদ হোসেনসহ আরো অনেকে। অনুষ্ঠানে ডিপিডিসির পক্ষে চুক্তি সই করেন কোম্পানিটির সচিব জয়ন্ত কুমার সিকদার আর গ্রামীণফোনের পক্ষে স্বাক্ষর করেন প্রতিষ্ঠানটির হেড অব ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস রাশেদা সুলতানা।

Add comment

Security code
Refresh


advertisement