আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 06 মিনিট আগে

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় কারাগারে রয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। দলীয় প্রধানের মুক্তি দাবি প্রতিদিনই রাজধানীসহ সারাদেশে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করছে তার দল বিএনপি। বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের মধ্যেই বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারা খালেদা জিয়াকে 'ষড়যন্ত্র' করে জেলে পাঠানোর জন্য সরকারকে ধন্যবাদ জানালেন।

mirza abbas bnp new

মঙ্গলবার দুপুরে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে দেশব্যাপী অবস্থান কর্মসূচির অংশ হিসেবে রাজধানীতে নয়াপল্টনে দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত হয় সমাবেশটি। এখানে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেন, ‌'আপনাদের অবশ্যই ধন্যবাদ জানাতে হয়। আমরা বেগম জিয়াকে দেশনেত্রী বানিয়েছিলাম। আপনারা তাকে নেলসন ম্যান্ডেলা বানিয়ে দিয়েছেন।'

বেলা ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত দলীয় কার্যালয়ের সামনে অসংখ্য নেতাকর্মী অবস্থান নেয়। খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে বিভিন্ন ধরনের স্লোগানে মুখরিত হয়ে ওঠে পুরো এলাকা। বিএনপি কেন্দ্রীয় বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন ২০ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতারা।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য মির্জা আব্বাস বলেন, 'অবস্থান কর্মসূচির জায়গা বারবার পরিবর্তন করায় আপনাদের কষ্ট হয়েছে। কিন্তু এজন্য আমরা দায়ী নই। সরকার আমাদেরকে এমন করতে বাধ্য করেছে। দেশনেত্রী খালেদা জিয়া আজ বন্দি। তিনি বন্দি মানেই গণতন্ত্র বন্দি। আন্দোলনের মাধ্যমে তাকে মুক্ত করে স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষা করবো।'

বিএনপির স্থায়ী কমিটির আরেক সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, 'গণতন্ত্রের অতন্দ্র প্রহরী বেগম খালেদা জিয়াকে ষড়যন্ত্র করে প্রহসন আর মিথ্যা মামলায় অন্যায়ভাবে সাজা দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অন্যায়ভাবে প্রথম শ্রেণির ডিভিশন থেকে বঞ্চিত করেছে। কিন্তু যে উদ্দেশ্য আপনারা এমনটা করেছেন সেটা সফল হবে না। কারাগারের খালেদা জিয়া অনেক বেশি শক্তিশালী। জাতীয় নেতা থেকে বেগম জিয়া আজ আন্তর্জাতিক নেতা।'

অবস্থান কর্মসূচিতে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, 'হাজার হাজার জনতার উপস্থিতিই প্রমাণ করে খালেদা জিয়া আবারো আপনাদের মাঝে ফিরে আসবেন।' স্থায়ী কমিটির আরেক সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‌'দেশে বিচারের নামে প্রহসন চলছে। সরকারের ইচ্ছা পূরণ করতেই এমন রায়। তারেক রহমানের নির্দেশে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চলছে। তারপরেও গ্রেপ্তার-নির্যাতন অব্যাহত রেখেছে পুলিশ।'

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সভাপতিত্বে অবস্থান কর্মসূচিতে অন্যান্যের মধ্যে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্যরা, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, জয়নাল আবদীন ফারুক, হাবিবুর রহমান হাবিব, আবুল খায়ের ভূইয়া, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুসহ কেন্দ্রীয় নেতারা। এছাড়া অবস্থান কর্মসূচিতে ২০ দলীয় জোটের নেতারাও ছিলেন।

Add comment

Security code
Refresh


advertisement