আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 27 মিনিট আগে

২০২১ সাল নাগাদ বাংলাদেশের বার্ষিক অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ১০ শতাংশে উন্নীত হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গত ৩০ ডিসেম্বর জাপানভিত্তিক সংবাদমাধ্যম নিক্কেই এশিয়ান রিভিউকে দেয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি এমন আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

sheikh hasina fourtune magazin

একাদশ জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে দেয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে শেখ হাসিনা জানান, চলমান অর্থবছরেই প্রবৃদ্ধি ৮ দশমিক ২৫ শতাংশে পৌঁছবে। তার সরকার ফের ক্ষমতায় আসলে ২০২১ সাল নাগাদ প্রবৃদ্ধির হার ১০ শতাংশে উন্নীত হবে।

আওয়ামী লীগ সরকারের নানামুখী পদক্ষেপের কারণে বাংলাদেশ এশিয়ার দ্রুততম ক্রমবর্ধমান অর্থনীতির রাষ্ট্রে পরিণত হচ্ছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘বিদেশি বিনিয়োগ উৎসাহিত করতে সারা দেশে ১০০টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল তৈরির পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। এর মধ্যে ১১টি চালু রয়েছে। বিদেশি বিনিয়োগ বাড়লে প্রবৃদ্ধিও বাড়বে।’

শেখ হাসিনা জানান, বাংলাদেশের ১৭ হাজার ৩৪০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন সক্ষমতার ৫৮ শতাংশ কেন্দ্রেই প্রাকৃতিক গ্যাস ব্যবহার করা হয়। আগামী বছর যত দ্রুত সম্ভব দ্বিতীয় পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রকল্প বাস্তবায়নে দরপত্র আহ্বান করা হবে। এর মাধ্যমে বিদ্যুতের উৎপাদন আরও বাড়বে। যা ২৪০০ মেগাওয়াটে পৌঁছবে।

এছাড়া রোহিঙ্গা শরণার্থী সমস্যা নির্বাচনী ইস্যু হয়ে উঠবে এমনটা মনে করেন শেখ হাসিনা। তিনি জানান, বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেছে। তিনি জনগণকে এটা বোঝাতেও সক্ষম হয়েছেন।

সংবাদমাধ্যমটি বলছে, ২০১৪ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দ্বিতীয় মেয়াদে সরকার গঠন করে। তবে সে বছর নির্বাচন বর্জন করেছিল বিএনপি। এবারের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিচ্ছে। তাই শেখ হাসিনার জন্য এটা গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচন।

Add comment

Security code
Refresh