আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 35 মিনিট আগে

যেখানে জ্বীনের নাম শুনলেই সবাই ভয়ে আঁতকে ওঠে সেখানে ব্রিটিশ এক নারী জানিয়েছেন, গত ১২ বছর ধরে ২০টি জ্বীনের সঙ্গে তার শারীরিক সম্পর্ক ছিলো! এ খবর জানিয়েছে ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট।

British women

ব্রিটেনের আইটিভি চ্যানেলের বরাত দিয়ে ইন্ডিপেন্ডেন্ট জানায়, জ্বীনদের শয্যাসঙ্গী হয়েছিলেন বলে দাবি করা ওই নারী ব্রিটেনের ব্রিস্টল শহরের বাসিন্দা এবং তার নাম অ্যামেথিস্ট রেলম। ২৭ বছর বয়সী অ্যামেথিস্ট রেলম ওই টিভি চ্যানেলের দ্য মর্নিং নামে একটি অনুষ্ঠানে জ্বীনের সঙ্গে তার শারীরিক সম্পর্কের বিষয়টি খোলাখুলিভাবে আলোচনা করেন।

অনুষ্ঠানে তিনি অকপটে বলেন, ‘এখন আর কোনো পুরুষ মানুষকে তার ভালো লাগে না’। ২০০৫ সালে নিজের বাগদত্তার সঙ্গে ব্রিস্টলে নতুন বাড়িতে ওঠেন তিনি। সেখানে যাওয়ার পরই অস্বাভাবিক কিছুর অস্তিত্ব টের পান তিনি।

ঘটনার বর্ণনা করতে গিয়ে রেলম জানান, তার ওপর প্রথমে একটি শক্তি ভর করে উরুতে চাপ দেয়, পরে ঘাড়ে শ্বাস নেয়, তবে তিনি ওই জ্বীনকে দেখতে পাননি। শুধু অনুভব করেছেন। কিছুদিন পর ওই জ্বীনকে তিনি মানুষের ছায়ার মত করে দেখতে পান। এক পর্যায়ে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

রেলম আরও জানান, একটি জ্বীনের সঙ্গে তার তিন বছর সম্পর্ক ছিল। পরে বিষয়টি তার সঙ্গী জেনে যায়। এতে তাদের সম্পর্ক ভেঙে যায়। পরে অন্য জ্বীনরা এসে তার সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তুলে বলে দাবি করেন রেলম। এক পর্যায়ে তার অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার সম্ভাবনাও জাগে। তবে বিশেষজ্ঞরা রেলমের এই দাবিকে উদ্ভট বলে আখ্যা দিয়েছেন।

ইউনিভার্সিটি অব লন্ডনের গোল্ড স্মিথ কলেজের সাইকলোজি বিভাগের অধ্যাপক ক্রিসটোফার ফ্রেন্স এ ঘটনাকে অগ্রহণযোগ্য বলে আখ্যায়িত করে বলেন, ‘এটা তার মানসিক রোগ। তিনি হ্যালুসিয়েশনে ভুগছেন। সাধারণত ঘুমের মধ্যে এমন অবস্থা সম্ভব। হয়তোবা তিনি এসব স্বপ্নে দেখেছেন।’

সূত্র: ইন্ডিপেন্ডেন্ট, ডেইলি মেইল ও নিউইয়র্ক পোস্ট

Add comment

Security code
Refresh