আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 35 মিনিট আগে

একজন নয় পরপর তিনজন ডাক্তার স্পেনের দণ্ডপ্রাপ্ত এক আসামি মৃত ঘোষণা করেন। কিন্তু কী করে জেল হেফাজতে আসামির মৃত্যু হল? এমন প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে লাশের ময়নাতদন্তের নির্দেশ আসে কারা কর্তৃপক্ষ থেকে।

Wrong treatment

যথারীতি লাশ রাখার ব্যাগে ভরে নেয়া হল মর্গে। কিন্তু যেই লাশ কাটার জন্য ব্যাগ খোলা হল অমনি দেখা গেল ওই ব্যক্তি নাক ডেকে ঘুমাচ্ছেন! অবিশ্বাস্য হলেও গত রোববার এমনটাই ঘটেছে স্পেনের অভিডো অঞ্চলের একটি মর্গে।

স্পেনের গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ময়নাতদন্তের জন্য গঞ্জো মন্তোয়া হিমেনেজ নামের ওই আসামির ‘লাশ’ ব্যবচ্ছেদ করা শুরু করার ঠিক পূর্ব মুহূর্তে নাক ডেকে ওঠেন তিনি। এতে সৌভাগ্যক্রমে ব্যাবচ্ছেদ হওয়ার হাত থেকে বেঁচে গেছেন তিনি।

আসামি হিমেনেজের এক আত্মীয় স্প্যানিস গণমাধ্যমে ক্ষোভ ও বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন, ‘অস্ত্রপচারের ছুরি দিয়ে কাটার জন্য তার শরীরে দাগও দেয়া হয়েছিল। এমন সময় ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা নাক ডাকার শব্দ পেলে সবাই চমকে ওঠেন। তাকে দ্রুত হাসপাতালের ইমারজেন্সি রুমে নিয়ে যান। এখন তিনি আইসিইউতে আছেন।’

স্পেনের টেলেসিনো চ্যানেল জানিয়েছে, তিনজন ডাক্তার ২৯ বছর বয়সী হিমেনেজকে পরীক্ষা করেও তার শরীরে কোন প্রাণের স্পন্দন পাননি। তখন  ধরে নেয়া হয়, সকাল ৮টার দিকে হিমেনেজ তার সেলের মধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন।

অন্যদিকে হিমেনেজের পরিবার অভিযোগ করে জানিয়েছে, ‘একজন ডাক্তার তাকে পরীক্ষা করেন আর বাকি দুইজন তাদের দায়িত্বে অবহেলা করেছেন। তারা পরীক্ষা না করেই ডেথ সার্টিফিকেটে স্বাক্ষর দিয়েছেন।’

Add comment

Security code
Refresh