আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 20 মিনিট আগে

ভারতের বেঙ্গালুরুর একটি মন্দিরে কুকুরকে দেবতা মেনে পূজো দিতে আসেন বহু দর্শনার্থী। কুকুরের আর্শিবাদ পেতে হাজার হাজার ভক্তের আগমন ঘটে মন্দিরটিত। ভক্তরা মনে করেন, ওই দেবতা ‘কুকুরের পেশাবও পবিত্র!’

dog temple6

অদ্ভুত এই মন্দিরটি বেঙ্গালুরুর থেকে ৬০ কিলোমিটার দূরে চান্নাপাটনার রামনগর জেলার আগ্রাহারায় অবস্থিত। কথিত আছে, বেশ কয়েক বছর আগে ওই গ্রাম থেকে রহস্যজনকভাবে দুটি কুকুর হারিয়ে যায়। কয়েকদিন পর কুকুর দুটি এলাকার লোকজনকে স্বপ্নে দেখা দেয় এবং মন্দির তৈরি করে পূজো দিতে বলে। এরপর ২০১০ সালে ভারতের বিখ্যাত ব্যবসায়ী রমেশ মন্দিরটি তৈরি করে দেন।

মন্দির তৈরি হওয়ার পর হারিয়ে যাওয়া ওই দুই কুকুর ফেরত না এলেও কুকুর দুটির মুর্তি সেখানে শোভা পাচ্ছে। ওই মুর্তি দুটিকে কেন্দ্র করে চারপাশে বিভিন্ন দেব-দেবীর মুর্তি বসানো হয়েছে। দেখলে মনে হবে যেনো অনন্য দেবতারা কুকুর দুটিকে নিরাপত্তা দিচ্ছে।

dog temple

টাইমস আব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রতি বছর কুকুর দুটির সম্মানে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় মন্দিরে। এতে হাজার হাজার ভক্ত অনুরাগীর আগমন ঘটে।

কলকাতা থেকে মন্দিরে যাওয়া নারায়ণ চন্দ্র নামের এক ভক্ত বলেন, ‘আমরা মায়ের (দেবতা) আশির্বাদ নিতে সময় পেলেই এখানে আসি। তিনি আমাদের মনের আশা পূরণ করেন।’

প্রতিবেদনে আরো উল্লেখ করা হয়, মন্দির এলাকায় কুকুরকে নির্যাতন, তাড়িয়ে দেওয়া সম্পূর্ণ নিষেধ। মন্দির কমিটি মনে করে- কুকুরের বেশে প্রভু মন্দিরের আশেপাশে ঘোরাফেরা করেন।

Add comment

Security code
Refresh