আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 26 মিনিট আগে

আমাদের বেশিরভাগই দোকানে গিয়ে যে জুতা জোড়া পছন্দ হয় সেগুলোই কিনে নিয়ে আসি বাড়িতে। অনেক সময় পায়ে ফিট হলেও বাড়িতে আনার পর দেখা যায়, পরে কিছুক্ষণ হাঁটলেই ব্যাথা লাগছে। তখন আর ফেরত দেয়ার উপায় বা ইচ্ছাও থাকে না।

choosing the right shoe

তাই শুধু বাইরের চাকচিক্য দেখে জুতা কেনা যে ভুল তা নিজেরাই বুঝতে পারি। বাসায় পরা, বাইরে পরার জন্য, হাঁটার জন্য বা ব্যায়ামের জুতা হতে হয় আলাদা আলাদা। তাই জুতা কেনার সময় যে দিকগুলো মাথায় রাখবেন তা নিয়ে আমাদের আজকের আয়োজন।

পায়ের আকারের জুতা না কিনে বরং এক ইঞ্চি বড় জুতা কেনা উচিত। এতে করে জুতা পরে আরাম পাওয়া যায়। বিশেষজ্ঞরা বলেন, যে জুতা পরে আরাম বোধ করবেন তাই পরা উচিত, তা হিল হোক বা ফ্লাট। তবে দুই ইঞ্চির বেশি হিল পরা ঠিক নয়। কোমর বা পা ব্যাথা করলে জুতা বদলানো উচিত বলে মনে করেন ডাক্তাররা। ফ্ল্যাট জুতার ক্ষেত্রে আরামদায়ক দেখে কেনা ভালো।

ব্যায়াম ও হাঁটার জুতা ভিন্ন হয়। এজন্য আরামদায়ক ও কুশনের জুতা ভালো। তবে দৌড় ঝাপ ও ব্যায়ামের জন্য কমপক্ষে দুজোড়া জুতা রাখা উচিত যাতে এক জোড়ার উপর বেশি চাপ না পড়ে।

জুতা কয়েক মাস ব্যবহারের পর ঠিক আছে কিনা পরীক্ষা করা উচিত। ছেঁড়াফাটা দেখা দিলে বদলে নেয়া ভালো। কেননা ছেঁড়া বা ফাটা জুতা পরলে হুটহাট রাস্তায় বিপদে পড়তে পারেন। ইনসোল ব্যবহারের আলাদা কোনো উপকার নেই বলেও জানা গেছে। তাই জুতা কেনার সময় আরাম, স্বাস্থ্যগত দিক ও সৌন্দর্য সব বিবেচনা করেই জুতা কিনুন।

Add comment

Security code
Refresh