আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 27 মিনিট আগে

দীর্ঘ একমাস সিয়াম সাধনার পর চারদিকে এখন ঈদের আমেজ। রোজা শেষে পুরনো সেই দিনপঞ্জিকা। অর্থাৎ খাওয়া দাওয়া। অতিথিদের আনা গোনায় আপ্যায়নে চাই পছন্দীয় কিছু আইটেম। তাছাড়া নিজেদের জন্যওতো করতে হয় কিছু না কিছু।

eid dinner

আমাদের সবারই অনেক পছন্দের তিনটি পদ দিয়ে একবেলার মেন্যু হিসেবেই কাচ্চি বিরিয়ানি, বোরহানী এবং একটি ডেজার্ট রেসিপি দিয়ে সাজানো হল আজকের আয়োজন-

কাচ্চি বিরিয়ানি

খাসির মাংস ১ কেজি, বাসমতি চাল ৫০০ গ্রাম, জিরা ১ চা চামচ, গোটা গরম মসলা ২ টেবিল চামচ, গরম মসলা গুঁড়ো ২ চা চামচ, গোলাপজল ১ টেবিল চামচ, রসুন-আদা বাটা ২ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ বেরেস্তা করা ২ কাপ, হলুদ ও জাফরান ১ চিমটি, লবণ: প্রতি স্বাদ হিসাবে, মরিচ গুঁড়া: 1 টেবিল চামচ, তেল: 5 টেবিল চামচ, ধনে ও পুদিনা পাতা ১ গুচ্ছ, দই ২ কাপ, কাজুবাদাম ৫০ গ্রাম।

  • কাচ্চি বিরিয়ানির জন্য খাসির রানের মাংস হলে সবচেয়ে ভালো। মাংস ভালো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে গরম মসলা, লবণ, আদা-রসুন বাটা, মরিচগুঁড়ো এবং দুই কাপ দই দিয়ে মাখিয়ে সারারাত ফ্রিজে রেখে দিন। তেল ও লবণ দিয়ে ভাত আধাসেদ্ধ করে রাখুন।
  • একটি বাটিতে সামান্য হালকা গরম দুধে জাফরান মিশিয়ে রাখুন।
  • পেঁয়াজ মিহিকুচি করে ভেজে বেরেস্তা করুন।
  • খানিকটা বেরেস্তা গুঁড়ো করে ম্যারিনেট করা মাংসে দিন। এবার একটি হাঁড়িতে প্রথমে ম্যারিনেট করা মাংস তারপর আধাসেদ্ধ ভাত, এর ওপর পুদিনা ও ধনে পাতা কুচি এবং এটির উপরে দুধে ভেজানো জাফরান ছড়িয়ে দিয়ে হাঁড়ি ঢাকা দিন। ঢাকনার চারপাশ গোলানো আটা দিয়ে লাগিয়ে চুলায় দমে দিন ৪৫ মিনিটের জন্য।
  • এরপর নামিয়ে বাদাম ও গোলাপজল ছড়িয়ে পরিবেশন করুন।
বোরহানি

টকদই ২৫০ গ্রাম, পুদিনাপাতা ৫-৬টা, লেবুর রস ১ চা চামচ, জিরা গুঁড়ো ১/২ চা চামচ, কাঁচামরিচ ২টি, চিনি সামান্য, পানি পরিমাণমতো, বিট লবণ স্বাদমত।

  • দই বাদে সব উপকরণ আগে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে নিয়ে পরে টকদই এবং পানি পরিমাণমতো দিয়ে আবার ব্লেন্ড করুন। গ্লাসে ঢেলে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।
ঘন দুধের ফিরনি

২ লিটার দুধ, ২ মুঠো পোলাওয়ের চাল, ১ ১/২ কাপ চিনি, ১০ টি কিশমিশ, ২টি করে এলাচ, দারচিনি ও তেজপাতা, ২ টেবিল চামচ পেস্তাবাদাম কুচি, ১ টেবিল চামচ ঘি।

  • পোলাওয়ের চাল ধুয়ে একঘন্টা ভিজিয়ে রাখুন। প্যানে দুধ ঢেলে এর মধ্যে এলাচ, তেজপাতা, দারচিনি দিয়ে জ্বাল দিন। দুধ খানিকটা ঘন হয়ে এলে এতে ভেজানো চাল তুলে দিয়ে আঁচ কমিয়ে ক্রমাগত নাড়তে থাকুন। চাল সেদ্ধ হয়ে এলে চিনি দিয়ে নাড়ুন। পায়েস ঘন হয়ে এলে ঘি দিয়ে সামান্য নেড়ে নামিয়ে ফেলুন। পরিবেশনের আগে কিশমিশ ও পেস্তাকুচি দিয়ে সাজিয়ে দিন।

ছোট-বড় সকলের সাথে ঈদ ডিনার হোক জমপেশ।

আপনি আরও পড়তে পারেন

সুস্বাদু ডেজার্ট 'ফ্রুটস পেস্ট্রি'

মাশরুমের দোপেঁয়াজা

খাসির মালাইকারি

মেহমান আপ্যায়নে 'সাদা কোফতা'

অতিথি আপ্যায়নে সুস্বাদু 'ডিমের কোরমা'

Add comment

Security code
Refresh