আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 55 মিনিট আগে

আমাদের মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ও আনন্দের উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর। এই ঈদে মিষ্টিমুখ করতে পারেন কয়েক প্রকার পায়েসের সাথে।

payesh

চলুন দেখে নেই রেসেপিগুলো-

আলুর পায়েস

দেড় কাপ আলুকুচি, দুই লিটার দুধ, এক কাপ চিনি, কিশমিশ ও বাদাম কুচি পরিমাণ মতো।

  • আলু খোসা ছাড়িয়ে কুচি করে ভাপিয়ে নিতে হবে। দুই লিটার দুধ জ্বাল দিয়ে এক লিটারে করে নিতে হবে। এরপর দুধে চিনি মেশান। চিনি গলে গেলে আলু সেদ্ধ দিয়ে খানিকক্ষণ জ্বাল দিয়ে নামিয়ে নিন। কিশমিশ ও বাদাম কুচি দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।
আম সাগুদানার পায়েস

এক কেজি দুধ, এক বাটি সাগুদানা, দুইটি আম, পঁচিশ গ্রাম কিশমিশ, চিনি স্বাদমত।

  • প্রথমে সাগুদানা বিশ মিনিটের জন্য ভিজিয়ে রাখুন। এক কেজি দুধ জ্বাল দিয়ে ঘন করে আধা কেজি পরিমাণ হলে ভিজিয়ে রাখা সাগুদানা দুধে দিয়ে দিতে হবে। এরপর স্বাদমত চিনি দিয়ে নাড়ুন। চিনি গলে গেলে আম ব্লেন্ড করে এতে দিয়ে মিনিট পাঁচেক রান্না করে নামিয়ে নিন।
ছানার পায়েস

আড়াইশো গ্রাম শক্ত ছানা ( পানি ঝরানো), দুই লিটার দুধ, চারশো গ্রাম চিনি, দশ গ্রাম পেস্তা বাদাম, ও চিরঞ্জি।

  • পেস্তা বাদাম ও চিরঞ্জি রাতে ভিজিয়ে রাখুন। ছানা লম্বা ও মিহিকুচি করে নিতে হবে। দুধ জ্বাল দিয়ে অর্ধেক করে চিনি মেশাতে হবে।চিনি গলে গেলে ছানার কুচি দিয়ে দশ মিনিট ভালোভাবে ফুটিয়ে নামান। পায়েসের উপর চিরঞ্জি ও ভেজানো পেস্তা বাদাম খোসা ছাড়িয়ে কুচি করে দিন।
নারকেলের পায়েস

এক কাপ করে নারকেল-পোলাওয়ের চাল-গুড়, দুইটি এলাচ ও দারুচিনি, পঞ্চাশ গ্রাম দুধ, দশটি কিশমিশ, প্টাঁচ পেস্তাবাদাম কুচি করা।

  • দুধে কোড়ানো নারকেল, চাল, এলাচ ও দারচিনি দিয়ে ক্রমাগত নাড়তে থাকুন। চাল ভালো করে সিদ্ধ হয়ে এলে গুড় দিয়ে নাড়ুন। ঘন হয়ে এলে নামিয়ে বাদাম কুচি ও কিশমিশ দিয়ে পরিবেশন করুন।
কাওন পায়েস

একশো গ্রাম কাওন, এক লিটার দুধ, একশো গ্রাম বাতাসা, তেজপাতা, ছোট এলাচ, কিশমিশ, কাজুবাদাম, পেস্তা, ঘি আন্দাজমত।

  • কাওন ঘিয়ে হালকা ভেজে রাখুন। চুলায় দুধে তেজপাতা দিয়ে ফুটিয়ে ভাজা কাওন মিশিয়ে ঘন ঘন নাড়ুন এবং জ্বাল দিন। ফুটতে থাকা কাওনের সাথে কিশমিশ, কাজুবাদাম মিশিয়ে নিন। সেদ্ধ হয়ে এলে বাতাসা দিয়ে খানিকক্ষণ জ্বাল দিন। ঘন হয়ে এলে নামান। এলাচ গুঁড়ো ও পেস্তাকুচি পরিবেশন করুন।

ঈদের দিন সবগুলো সম্ভব না হলে ঈদের সাতদিনের মাঝে যে কোন দিন রেঁধে চেখে দেখতে পারেন এই নানান স্বাদের পায়েসগুলো। অন্যান্য খাবের পাশে রাখতে পারেন পায়েস ডেজার্ট।

আপনি আরও পড়তে পারেন

ঈদ কাটুক মুখরুচক নাস্তায়

গৃহিণীদের রান্নার তোড়জোড় শুরু

ভিন্ন স্বাদের ডেজার্ট `সাবুর ঠাণ্ডাই'

অতিথি আপ্যায়নে ক্রীমি পুডিং

মজাদার ডেজার্ট অরেঞ্জ মুজ

Add comment

Security code
Refresh