আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 11 মিনিট আগে

ঈদে ঘরে ঘরে মাংস থাকাটাই স্বাভাবিক। এই সময়ে প্রথম দিন মাংস খাওয়ার পর দ্বিতীয় দিন থেকেই আর মাংস ভালো লাগে না। তাই মাংস রান্না মুখরোচক হওয়ার জন্য চাই নতুন ধরণের রেসিপি।

mutton biriyani
এই সময় বাড়িতে গরু এবং খাসির মাংস দুটোই থাকে। খাসির মাংসের অতুলনীয় স্বাদের জন্য মোটামুটি সবারই প্রিয়। আজকে ঈদে রান্না করার মত খাসির মাংসের রেসিপি দেয়া হল। চলুন জেনে নিই-

খাসির মাংসের বিরিয়ানি

বড় টুকরো করে কাটা খাসির মাংস সাতশ গ্রাম, বাসমতী চাল পৌনে এক কেজি, আলু ২৫০ গ্রাম, টক দই এক কাপ, জাফরান মেশানো এক কাপ দুধ, তেল আধা কাপ, বেরেস্তার জন্য পেঁয়াজকুচি আধা কাপ, ঘি এক টেবিল চামচ, আদা-রসূন-বাদামবাটা দুই টেবিল চামচ করে, জিরা-ধনিয়াবাটা এক চা চামচ করে, জয়ত্রী-মরিচ-হলুদগুঁড়ো আধা চা চামচ, দারচিনি তিন টুকরো, এলাচ চারটা, পোস্তদানা এক চিমটি, জয়ফল সামান্য, কাঁচামরিচ পাঁচটা, লবণ স্বাদমত, কিশমিশ, কাজুবাদাম, আলু বোখারা আটটি, গরমপানি প্রয়োজনমত, ঢাকনা লাগাতে আটার কাই (প্রয়োজন অনুসারে)।

  • খাসির মাংস ভাল মত পরিষ্কার করে ধুয়ে টকদই দিয়ে ত্রিশ মিনিট ভিজিয়ে রাখুন। চাল ধুয়ে আধা সেদ্ধ করে পানি ঝরিয়ে রাখুন। মাংসে লবণসহ সব মসলা মাখিয়ে ঘণ্টা খানেক ম্যারিনেট করে রেখে দিন। আলু চৌকো করে কেটে ভেজে নিতে হবে। পেঁয়াজকুচি দিয়ে বেরেস্তা ভেজে নিন। এবার বেরেস্তা ভাজা তেলে আরেকটু তেল দিয়ে ম্যারিনেট করা মাংস দিয়ে রান্না করুন। আঁচ মাঝারি রাখতে হবে। মাঝে ঢাকনা সরিয়ে নেড়ে দিতে ভুলবেন না।
  • মাংস সেদ্ধ হয়ে নরম হলে ভাজা আলু দিয়ে দিন। এবার কিছু রেরেস্তা, কিশমিসশ, কাঁচামরিচ, বাদামকুচি ও কয়েকটা আলু বোখারা ছিটিয়ে দিন। এরপর এক স্তর আধা সেদ্ধ চাল দিয়ে এর ওপর আবার কিছু রেরেস্তা, কিশমিসশ, বাদামকুচি, আলু বোখারা, কাঁচামরিচ দিয়ে জাফরান মেশানো দুধ ছড়িয়ে ঢাকা দিন। তারপর আটার কাই বানিয়ে তা দিয়ে ঢাকনা বন্ধ করে চুলার উপর তাওয়া দিয়ে বসিয়ে দিন। মাঝারি আঁচে ৪০ মিনিট দমে রান্না করুন।

শেষে চুলা থেকে নামিয়ে ঢাকনা খুলে এক পাশ থেকে পরিবেশন করুন।

মুরগীর মাংস দিয়ে বুটের ডাল

ঝাল ঝাল ফ্রাইড রাইস

ঈদ কাটুক মুখরোচক নাস্তায়

গৃহিণীদের রান্নার তোড়জোড় শুরু

ঈদের দিনের রাতের খাবার

Add comment

Security code
Refresh


advertisement