আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 10 মিনিট আগে

চাল ধোঁয়া পানি বা ভাতের মাড়। প্রতিদিন একাধিকবার গৃহিনীর হাত দিয়েই বেরিয়ে যায় এই দুই তরল পদার্থ। সোজাসুজি বললে, চাল ধোঁয়া পানি বা ভাতের মাড়ের মতো 'অপ্রয়োজনীয় এই তরল' পদার্থ সাধারণত ফেলেই দেন সবাই।

rice water benefits

কিন্তু যদি বলা হয় ত্বক ও চুলের যত্নে চালের পানি আর ভাতের মাড় খুবই প্রয়োজনীয়? কপাল কুঁচকে আগে বুঝতে চাইবেন মজা করছি কি না। কিন্তু মজা নয়, সত্যিই ত্বক ও চুলের যত্নে ঘরে বসেই বিনা খরচে আপনি কাজে লাগাতে পারেন এই পানি।

চালের পানি ও ভাতের মাড়ে রয়েছে মিনারেলস, প্রচুর অ্যামিনো এসিড ও ভিটামিন যা ত্বক ও চুলের যত্নে বেশ উপকারী। ত্বকের ব্যাক্টেরিয়া ও ছত্রাক দূর করতে এই পানি কাজ করে। প্রাকৃতিক ক্লিনজার হিসেবে ত্বকে লাগিয়ে শুকিয়ে যাবার আগে ম্যাসাজ করে নিতে হবে। এতে করে ত্বক টান টান হবে।

চালের পানি প্রাকৃতিক টোনার হিসেবেও কাজ করে থাকে। ত্বকের কোষ বাড়ায়, রক্ত চলাচল বাড়ায় ও ত্বককে কোমল করে। সানবার্ন দূর করে ত্বকের ক্ষত সারায় ও ব্রণ দূর করতে সক্ষম চালের পানি। ত্বকের একজিমা ও এলার্জি দূর করে। ভাল ফলাফল পেতে একটানা কয়েকদিন ব্যবহার করতে হবে।

আর চুলের যত্নে, শ্যাম্পু করার পর চালের পানি দিয়ে চুল ধুয়ে নিলে চুল মজবুত ও সিল্কি হয়। ভাতের মাড় চুলে লাগিয়ে হালকা ম্যাসাজ করে কিছুক্ষন পর চুল ধুয়ে নিতে হবে। এতে মাড় কন্ডিশনার হিসেবে ভাল কাজ করবে। চুলের ড্যামেজ প্রতিরোধক হিসেবেও ব্যবহার করতে পারেন চালের পানি। চুলের গোড়া শক্ত করতেও এর জুড়ি নেই।

Add comment

Security code
Refresh