আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 51 মিনিট আগে

সম্প্রতি স্পেনের বার্সেলোনায় অনুষ্ঠিত হলো বিশ্বের সবচেয়ে বড় মোবাইল ফোন প্রদর্শনী অনুষ্ঠান 'মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস-২০১৭' (এমডব্লিউসি)। সারা বিশ্বের নামকরা সব প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহণে এই অনুষ্ঠানে নতুন বহু প্রতিষ্ঠানের বিশেষ পণ্যের ঘোষণা এসেছে। সেখানে ঘোষিত হওয়া সেরা পাঁচ ফোন নিয়ে এই ফিচার। 

lg g6 smartphone

এলজি জি ৬

গতবছর এলজির জি ৫ স্মার্টফোনই ছিল প্রতিষ্ঠানটির এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বড় এক্সপেরিমেন্ট। কিন্তু মোবাইলটি সবদিক থেকে অত্যন্ত আকর্ষণীয় হলেও প্রত্যাশিত সাফল্য অর্জন করতে ব্যর্থ হয়। তাই এবার প্রতিষ্ঠানটি আর ঝুঁকি নেয়নি। তাদের জি ৬ ফোনটিতে বিশেষ কোন ফিচার যোগ করা না হলেও বাড়ানো হয়েছে সক্ষমতা। ৫.৭ ইঞ্চি কিউএইচডি প্লাস ডিসপ্লের ফোনটির রেজ্যুলুশন আইফোন ৭ আর গ্যালাক্সি এস ৭-কেও হার মানায়।

৩৩০০ এমএএইচ ব্যাটারি সংবলিত এলজি জি ৬ ফোনটিতে রয়েছে দুটি ১৩ মেগাপিক্সেল রেয়ার ক্যামেরা এবং ওয়াইড অ্যাঙ্গেল সেলফি ক্যামেরা। অ্যান্ড্রয়েড নোগাট অপারেটিং সিস্টেমচালিত ফোনটিতে রয়েছে কোয়ালকম নির্মিত শক্তিশালী ৪২১ প্রসেসর। এতে রয়েছে উচ্চ গতিসম্পন্ন ওয়্যারলেস চার্জিং ও ইউএসবি সি পোর্ট।

হুয়াওয়েই পি ১০ প্লাস

huawei p 10

বাজারে এখন হুয়াওয়েইর চাহিদা আকাশচুম্বী। এর কারণ হলো, প্রতিষ্ঠানটি তুলনামূলক স্বল্পমূল্যে বেশি সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছে। হুয়াওয়েই পি ১০ প্লাস স্মার্টফোনটি প্রতিষ্ঠানটির নতুন ফ্ল্যাগশিপ ফোন।

অ্যান্ড্রয়েড ৭.০ নোগাট অপারেটিং সিস্টেম চালিত এই ফোনে ৫.৫ ইঞ্চি কার্ভড এজ স্ক্রিন, ২০ মেগাপিক্সেল ও ১২ মেগাপিক্সেলের দুটি রেয়ার ক্যামেরা এবং ৮ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা রয়েছে। অক্টাকোর প্রসেসরসম্পন্ন এই ফোনে রয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর ও ৩৭৫০ এমএএইচ ব্যাটারি।

হুয়াওয়েই পি ১০ প্লাসের দুটি সংস্করণ এনেছে প্রতিষ্ঠানটি। একটিতে রয়েছে ৪ জিবি র‌্যাম ও ৬৪ জিবি স্টোরেজ এবং অন্যটিতে রয়েছে ৬ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ।

স্যামসাং গ্যালাক্সি ট্যাব এস ৩

samsung galaxy tab s3

স্যামসাং গ্যালাক্সি ট্যাব এস ৩ তে রয়েছে মোট চারটি স্পিকার। ৯.৭ ইঞ্চি সুপার অ্যামলেড স্ক্রিনবিশিষ্ট ট্যাবলেটটিতে ১৩ মেগাপিক্সেল রেয়ার ক্যামেরা ও ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা যুক্ত করা হয়েছে। সঙ্গে রয়েছে স্যামসাংয়ের এস পেন ফলে ট্যাবটির কার্যক্ষমতা নিয়ে প্রশ্ন তোলার কোন উপায়ই নেই। এক্সটার্নাল কিবোর্ড যুক্ত করার সুবিধা থাকায় এটি ল্যাপটপের মতো করেও ব্যবহার উপযোগী।

সনি এক্সপেরিয়া এক্সজেড প্রিমিয়াম

sony xperia xz premium

সনির এক্সজেড প্রিমিয়ামে রয়েছে উচ্চমানের স্মার্টফোনের সমস্ত গুণ। ৫.৫ ইঞ্চি ৪ কে রেজ্যুলুশনের এইচডিআর স্ক্রিনের এই ফোনে রয়েছে ১৯ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা ও ভিডিও করার সুবিধা। এতে রয়েছে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন স্ন্যাপড্রাগন ৮৩৫ প্রসেসর, ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। তবে এতো সুবিধা থাকা এই ফোনের দুর্বলতা হলো এর ব্যাটারি। ফোনটিতে ৪ কে রেজুল্যুশনের স্ক্রিন অনেক বেশি বিদ্যুৎ ব্যবহার করার কথা। তাই ৩২৩০ এমএএইচ ক্ষমতার ব্যাটারি ফোনটির চাহিদার কতটুকু পূরণ করতে পারবে তা নিয়ে প্রশ্ন থেকে যায়।

নকিয়া ৩৩১০

nokia 3310 writes the history of coming back

প্রথমবার ২০০০ সালে বাজারে এসেছিলো নকিয়ার ৩৩১০। তখন আইফোন বা স্মার্টফোনের সঙ্গে মানুষের কোনো পরিচয় ছিলো না। পুরোনো ৩৩১০ মডেলের কিছু ব্যাপার ঠিক রেখে নতুন ফোনটি ঢেলে সাজানো হয়েছে। এতে যোগ হয়েছে ক্যামেরা, রঙিন ডিসপ্লে, মাইক্রো এসডি কার্ড এবং শক্তিশালী ব্যাটারি। নকিয়ার বিখ্যাত ‘স্ন্যাকস’ গেমসটিও রাখা হয়েছে। তবে বদলে ফেলা হয়েছে এর ডিজাইন।

নতুন ৩৩১০ দিয়ে টানা ২২ ঘণ্টা কথা বলা যাবে। এর স্ট্যান্ডবাই টাইম পুরো এক মাস। অর্থাৎ একবার চার্জ করে নিলে ফোন দিয়ে দুই তিন সপ্তাহ অনায়াসে কাটিয়ে দেয়া যাবে। এ ছাড়া অন্য মোবাইল থেকে তথ্য শেয়ারের জন্য এতে ব্লুটুথ ব্যবস্থাও আছে।

মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে নকিয়া জানিয়েছে, নতুন ফোনটি এক সিম ও দুই সিমের আলাদা সংস্করণে বাজারে পাওয়া যাবে। এর দাম ধরা হয়েছে ৫০ ডলার। বাংলাদেশি টাকায় যা প্রায় চার হাজার টাকা। নতুন ৩৩১০ পাওয়া যাবে চারটি ভিন্ন রঙে। রঙগুলো হলো— কালো, লাল, ধূসর ও হলুদ। নকিয়া ধারণা করছে, আইকনিক হওয়ার কারণে এই ফোনটি ভোক্তা পর্যায়ে দারুণ জনপ্রিয়তা পাবে।

advertisement

Add comment

Security code
Refresh