আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 48 মিনিট আগে

এখন থেকে দেশের বাজারে পাওয়া যাবে কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তার চিপসম্বলিত স্মার্টফোন মেট টেন প্রো। চীনের প্রযুক্তি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে এই ফ্ল্যাগশিপ মোবাইল ফোন বাংলাদেশের বাজারে উন্মুক্ত করেছে। গবেষণাকারী প্রতিষ্ঠান অ্যান্ড্রয়েড অথোরিটির হিসেবে এই ফোনটিই ২০১৭ সালের সেরা স্মার্টফোন।

huawei mate 10 pro in bd

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীর পাঁচ তারকা হোটেল প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁওয়ে এক আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানে ফোনটির যাত্রা শুরু হয়। হুয়াওয়ে বলছে, ফোনটিতে রয়েছে কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তার চিপ। কিরিন ৯৭০ পিচসেট ও ইএমইউআই ৮.০ দিয়ে তৈরি ফোনটি বিশ্বের সবচেয়ে অভিনব এবং উচ্চ-ক্ষমতা সম্পন্ন ডিভাইস। বাংলাদেশে আসার আগে গত অক্টোবরে জামার্নিতে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে মেট টেন প্রো।

বাংলাদেশের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে হুয়াওয়ে টেকনোলজিস লিমিটেড ডিভাইস বিজনেসের ডেপুটি কান্ট্রি ডিরেক্টর জিয়াউদ্দিন চৌধুরী জানান, হুয়াওয়ে মেট টেন প্রোতে রয়েছে কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তাসমৃদ্ধ নিউরাল নেটওয়ার্ক প্রসেসিং ইউনিট। তার দাবি, ফোনটি নতুন প্রজন্মের সবচাইতে বুদ্ধিমান স্মার্টফোন।

ফোনটিতে ব্যবহৃত কিরিন ৯৭০ নামের চিপসেটটি বিশ্বের প্রথম বুদ্ধিমত্তাসমৃদ্ধ প্রসেসর। এতে কাজ করবে নিউরাল নেটওয়ার্ক প্রসেসিং ইউনিট, অক্টাকোর এআরএম কোর্টেক্স সিপিইউ। ফোনটিতে রয়ে প্রথমবারের মতো ১২ কোরের মালি-জি১২ জিপিইউ। সেই সঙ্গে ব্যবহার করা হয়েছে এনপিইউ প্রযুক্তি। ফোনটির ডিসপ্লে ৬ ইঞ্চি। ডিসপ্লেটি ফুলভিউ এবং এইচআরডি-১০ সাপোর্ট করে। ফলে ব্যবহারকারী পাবেন উজ্জ্বল কালারের ঝকঝকে ছবি।

ফোনটির ব্যাটারি ৪০০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার ক্ষমতাসম্পন্ন। এতে রয়েছে টিইউডি ফার্স্ট চার্জ সেফটি সার্টিফিকেট, রয়েছে সুপার চার্জিং প্রযুক্তি। ফলে চার্জ নিয়ে কোন ঝামেলাই হবে না। ক্যামেরাটি লাইকা প্রযুক্তির ডুয়েল ব্যাক ক্যামেরা। যা ১২ মেগাপিক্সেল আরজিবি এবং ২০ মেগাপিক্সেল মনোক্রম। ক্যামেরার অ্যাপার্চার হচ্ছে এফ/১.৬। ছবির ফোকাস নির্ধারণ প্রযুক্তি ও কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তা প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে ক্যামেরায়। ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ইএমইউআই ৮.০ ইউজার ইন্টারফেস। এছাড়া রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ৮.০ অপারেটিং সিস্টেম।

ফোনটির রোম ১২৮ জিবি, র‌্যাম হচ্ছে ৬ জিবি।  সামনে-পেছনে রয়েছে গ্লাস আর ফোনের ফ্রেম হচ্ছে অ্যালুমিনিয়ামের। ফোনটি ধুলা এবং পানি প্রতিরোধী, যা ১ মিটার গভীরতার পানিতে ৩০ মিনিট পর্যন্ত সুরক্ষিত থাকবে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ফোনটি পানিতে ফেলে সকলকে দেখানো হয়। আগামী ৪ জানুয়ারি থেকে ফোনটি বাংলাদেশের ব্র্যান্ডশপগুলোতে ক্রেতারা কিনতে পাবেন। দাম পড়বে ৮০ হাজার ৯০০ টাকা।

Add comment

Security code
Refresh