আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 43 মিনিট আগে

গুঞ্জন চলছিল নতুন আইফোনে কী চমক থাকছে। অবশেষে বুধবার টেক জায়ন্ট অ্যাপল যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় স্টিভ জবস থিয়েটারে নতুন তিনটি আইফোনের উন্মোচন করলো। নতুন আইফোনগুলোতে যে ফিচারগুলো রয়েছে; চলুন জেনে নিই। 

new 3 iphone

ই-সিম কার্ড: আইফোন এক্সএস, এক্সএস ম্যাক্স-এ থাকছে ডুয়াল সিম ব্যবহারের সুবিধা। তবে এর দুইটি ধরণ তৈরি করা হয়েছে- একটি চাইনিজ মার্কেটের জন্য এবং অন্যটি বিশ্বের অন্যান্য অঞ্চলের জন্য। চাইনিজ ভার্সনে দুটি সিমই সাধারণ সিম থাকবে। আর বিশ্ব ভার্সনে একটি সাধারণ সিম ও আরেকটি ই-সিম কার্ড ব্যবহারের সুবিধা থাকবে। অন্যদিকে অ্যাপলের স্মার্ট ওয়াচে শুধুমাত্র ই-সিম যুক্ত করা হয়েছে, সেখানে সাধারণ সিম ব্যবহারের সুযোগ নেই। মোবাইল ফোন নেটওয়ার্ক যদি ই-সিম সুবিধা থাকে, তবেই ই-সিম সেবা পাওয়া যাবে।

অ্যাপলের তথ্য অনুসারে, ভারতের রিলায়েন্স, এয়ারটেল ও ভোডাফোনে ই-সিম সেবার প্রযুক্তি রয়েছে। বাংলাদেশে এখনো এই সেবা পৌঁছায়নি। এই দুইটি মডেলের সাথে বাজারে আসা আইফোন এক্সআর-এ একটি সিম ব্যবহার করা যাবে। তাই ই-সিম কার্ড ব্যবহারের সুযোগও পাওয়া যাবে না ফোনটিতে।

প্রসেসর: নতুন আইফোনগুলোতে ৬ কোরের এ১২ বায়োনিক চিপ ব্যবহার করা হয়েছে। যা অ্যাপলের পুরানো যে কোন মডেলের আইফোনের চেয়ে কমপক্ষে নয়গুণ দ্রুতগতির। অ্যাপল জানিয়েছে, এই নতুন চিপ প্রতি সেকেন্ডে ৫ ট্রিলিয়ন অপারেশন চালাতে সক্ষম হবে। এ১২ বায়োনিক চিপ পূর্ববর্তী এ১১ থেকে কমপক্ষে দ্বিগুণ শক্তিশালী।

iphone xs 2018আইফোন এক্সএস

ক্যামেরা: ফোনগুলোতে ১২ মেগা পিক্সেলের দুইটি ক্যামেরা যুক্ত থাকবে। অ্যাপলের মতে, এই ক্যামেরা হবে আগের যে কোন মডেলের ক্যামেরা থেকে বেশি স্বচ্ছ। এর সর্ববৃহৎ সেন্সর হবে ১.৪ মাইক্রন, যা পূর্ববর্তী আইফোন এক্স-এ ছিল ১.২২ মাইক্রন। ক্যামেরায় উন্নত এইচডিআর প্রযুক্তি সংযুক্ত করা হয়েছে, যা কাছের ও অনেক দূরের ছবি বা ভিডিও ধারণ করতে সক্ষম হবে। যা ফটোগ্রাফির জগতে নতুন মাত্রা যোগ করবে।

অপারেটিং সিস্টেম: মডেল তিনটির সাথে থাকছে আইওএস১২ অপারেটিং সিস্টেম। এ বছরের শুরুর দিকে ডাব্লিউডাব্লিউডিসি সম্মেলনে নতুন এই অপারেটিং সিস্টেম বাজারে আনে অ্যাপল। তবে এটি আইওএস১১ থেকে বেশি দ্রুত নয় বলে জানা গেছে। তবে এতে ফেইসটাইম কনফারেন্সের সুবিধা যুক্ত করা হয়েছে।

iphone sx max 2018আইফোন এক্সএস ম্যাক্স

ডিসপ্লে: আইফোন এক্সএস ম্যাক্স এর ডিসপ্লে ৬.৫ ইঞ্চি, যা এ যাবতকালে আইফোনের সবচেয়ে বড় ডিসপ্লে। এছাড়া আইফোন এক্সএস-এর ডিসপ্লে ৫.৮ ইঞ্চি এবং আইফোন এক্সআর-এর ডিসপ্লে ৬.১ ইঞ্চি। ডিসপ্লেগুলোর নাম দেয়া হয়েছে লিকুইড রেটিনা ডিসপ্লে। ডিসপ্লেগুলো ওয়াটার প্রুফ, যা পানির নিচে ৩০ মিনিট পর্যন্ত নিরাপদে থাকতে পারবে। সাথে থাকছে থ্রিডি টাচ স্ক্রিন সুবিধা। 

ব্যাটারির চার্জ: আইফোন এক্সএস ও আইফোন এক্সআর-এ অতীতের যেকোন মডেল থেকে প্রায় ৩০ মিনিট বেশি চার্জ থাকবে। এছাড়া আইফোন এক্সএস ম্যাক্স-এ ১.৩০ ঘন্টা বেশি চার্জ থাকবে।

স্টোরেজ: আইফোন এক্সএস ও আইফোন এক্সআর ও আইফোন এক্সএস ম্যাক্স-এ স্টোরেজ থাকবে যথাক্রমে ৬৪ জিবি, ২৫৬ জিবি এবং ৫১২ জিবি। এছাড়া ৫১২ জিবি পর্যন্ত এক্সটারনাল স্টোরেজ সংযুক্ত করা যাবে।

iphone xr 2018আইফোন এক্সআর

দাম: আইফোন এক্সএস-এর দাম বাংলাদেশি টাকায় (৮৩.৪১ প্রতি ডলার) প্রায় ৮৪ হাজার টাকা। এছাড়া আইফোন এক্সআর ও আইফোন এক্সএস ম্যাক্স পাওয়া যাবে যথাক্রমে ৭৫ হাজার ও ৯২ হাজার হাজার টাকায়।

বিক্রয় শুরু: আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে নতুন আইফোনগুলোর প্রি-অডার্র গ্রহণ শুরু হবে, আর তা গ্রাহকদের হাতে তুলে দেয়া শুরু হবে ২১ সেপ্টেম্বর থেকে।

এছাড়া অ্যাপলের এই নতুন তিন আইফোন প্রযুক্তি জগতে যুক্ত করলো আরও একটি নতুন অধ্যায়। অ্যাপলের প্রধান নির্বাহী টিম কুকের ভাষায়, এই যাত্রা প্রজন্মকে এগিয়ে নিয়ে যাবে আরো একটি নতুন ধাপে।

Add comment

Security code
Refresh