আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 27 মিনিট আগে

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জঙ্গি ও চরমপন্থি সংগঠনগুলো যেসব পোস্ট করেছে তা এক ঘন্টার মধ্যে সরিয়ে ফেলতে বলেছেন ‘ইউরোপিয়ান কমিশনের চেয়ারম্যান জ্যান ক্লাউড জুকার। অন্যথায় গুগল, ফেসবুক ও টুইটারকে জরিমানা করার হুমকি দিয়েছেন। বুধবার ইউরোপিয়ান সংসদের বার্ষিক ভাষণে তিনি এ কথা বলেন। খবর: বিবিসি।

w

জ্যান ক্লাউড বলেন, 'প্রতিষ্ঠানগুলোকে আর কোন সময় দেয়া সম্ভব নয়। গত মার্চে তাদেরকে তিন মাসের সময় বেঁধে দেয়া হয়েছিল। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে তারা সাইট থেকে চরমপন্থিদের পোস্ট সরিয়ে নিতে সক্ষম হয়নি।’

তবে ইউরোপিয়ান নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা বলছেন, এ কাজের জন্য বেঁধে দেয়া তিন মাস সময় যথেষ্ট নয়। এ কাজের জন্য আরও সময় দিতে হবে।

ফেসবুক জানিয়েছে, 'ফেসবুকে কোন চরমপন্থার আশ্রয় নেই। আমরা ইউরোপিয়ান কমিশনের সাথে ঐক্যবদ্ধভাবে চরমপন্থার মোকাবেলা করতে প্রস্তুত। আমরা মনে করি এটি শুধু ফেসবুকের একার দায়িত্ব নয়, বরং এরজন্য সাধারণ মানুষ, নাগরিক সমাজ ও সকল প্রতিষ্ঠানের সম্মিলিত সহায়তার প্রয়োজন।'

এ বিষয়ে ইউটিউবের এক মুখপাত্রের বক্তব্য, ‘ইউরোপিয়ান কমিশনের সতর্ক বার্তা আমরা আমলে নিয়েছি। আমাদের প্লাটফর্মে চরমপন্থার কোন সুযোগ নেই। এসব প্রতিরোধে আমরা ব্যাপক জনবল ও প্রযুক্তি প্রয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। পাশাপাশি আমরা বিভিন্ন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের সাথে সমন্বয় করে কাজ করবো।’

টুইটার জানিয়েছে, ২০১৫ সালের আগস্ট থেকে ২০১৭ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে তারা প্রায় ১ দশমিক ২ বিলিয়ন চরমপন্থি আইডি বাতিল করেছে। এর মধ্যে ৯৩ শতাংশ পোস্ট দেয়ার পর টুইটার টুলসের মাধ্যমে সরানো হয়েছে এবং প্রথম পোস্ট দেয়ার পূর্বেই বাতিল করা হয়েছে ৭৪ শতাংশ।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সাল থেকে ইউরোপিয়ান কমিশন গুগল, ফেসবুক ও টুইটারকে চরমপন্থিদের তথ্য সরিয়ে নেয়ার আহ্বান জানিয়ে আসছে।

Add comment

Security code
Refresh