আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 30 মিনিট আগে

মহেন্দ্র সিং ধোনি ভারতের ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়কত্ব ছাড়া পর থেকেই আলোচনা হচ্ছে, ধোনিকে নেতৃত্ব ছাড়তে বাধ্য করা হয়েছে। ভারতীয় নির্বাচকরা অবশ্য অস্বীকার করে আসছেন অভিযোগটা। তবে এবার শোনা যাচ্ছে নতুন কথা। নির্বাচকদের চাপে নয়, অন্য কারো চাপের মুখে অধিনায়কত্ব ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন ভারতের অন্যতম সেরা এই অধিনায়ক!

dhoni is being critesized

এই ‘নাটেরগুরু’ নাকি বোর্ডের যুগ্ম সচিব ও ঝাড়খন্ড ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের ক্ষমতাবান কর্তা অমিতাভ চৌধুরী। অমিতাভ রঞ্জি ট্রফির সেমিফাইনালে ঝাড়খন্ডের হয়ে খেলতে বলেছিলেন ধোনিকে। কিন্তু প্রস্তাব মানেননি ধোনি।

advertisement

এ থেকেই ধোনির ওপর চটে ছিলে অমিতাভ। পরে প্রধান নির্বাচক এস কে প্রসাদকে ফোন করে বলেন ধোনির ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা জানতে। প্রসাদ ধোনির সঙ্গে এ বিষয় নিয়ে আলোচনায় বসতেই বিষয়টা বুঝে যান ধোনি।

৩৫ বছরের অধিনায়কের কাছে ‘ভবিষ্যত পরিকল্পনা’ জানতে চাওয়ার মনেটা কী! অভিমানী ধোনি আর দেরি করেননি। সীমিত ওভারের অধিনায়কত্বই ছেড়ে দেন। ভারতীয় গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়াকে এমন কথা বলেছেন বিহার ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সচিব আদিত্য ভার্মা।

advertisement

Add comment

Security code
Refresh