আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 41 মিনিট আগে

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) দল বরিশাল বুলসের অন্যতম মালিক এমএ আওয়াল চৌধুরী মুশফিকুর রহিমকে অপমান করে যে মন্তব্য করেছেন, তার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে দেশের সব ক্রিকেটারদের সংগঠন ক্রিকেটার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (কোয়াব)। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে তারা।

mushfiq angry on ma awal bulu

সম্প্রতি আওয়াল দাবি করেন যে, বিপিএলের গত মৌসুমে বরিশাল বুলসের ব্যর্থতার কারণ ছিলেন মুশফিক। তিনি মুশফিকের অধিনায়কত্ব এবং তার শৃঙ্খলা নিয়েও প্রশ্ন করেন।

জাতীয় দলে ১২ বছর এবং এর আগে বয়সভিত্তিক দলে আরো পাঁচ বছর; সব মিলিয়ে ১৭ বছরের মূলধারার ক্রিকেটে মুশফিকের বিরুদ্ধে কখনোই এ ধরনের গুরুতর অভিযোগ উঠেনি। বরং জাতীয় দলে যে কজন ক্রিকেটার শৃঙ্খলার জন্য আদর্শ হতে পারেন, মুশফিক তাদেরই একজন।

আওয়াল চৌধুরীর অভিযোগ তাই সহজভাবে মানতে পারেননি মুশফিক। গণমাধ্যমের মুখোমুখি তিনি বলেছেন যে, এ ধরনের কথাবার্তা তাকে দারুণভাবে আহত করেছে। তিনি বলেন, ‘কেউ বলতে পারে যে আমি খেলোয়াড় নই। কিন্তু আমার শৃঙ্খলা নিয়ে প্রশ্ন তুললে সেটা খুবই দুঃখজনক।’

মুশফিক এ ঘটনায় বিপিএল পরিচালনা পরিষদের কাছে অভিযোগ করেন এবং এর প্রতিকার চান। এ বিষয়ে বিপিএল পরিচালনা পরিষদের সদস্য সচিব ইসমাঈল হায়দার মল্লিক সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘মুশফিককে যে ধরনের কথা বলা হয়েছে, তা অশোভনীয়। আমরা অবশ্যই বরিশাল বুলসকে শোকজ পাঠাবো। তাদের শাস্তিও হতে পারে।’

ইসমাঈল হায়দার মল্লিক যে কথা বলেছেন, তাতে সন্তোষ প্রকাশ করেছে কোয়াব একই সঙ্গে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের এই সংগঠন আশা প্রকাশ করে তাদের এক বিবৃতিতে বলেছে যে, ‘সকল সংগঠক, ক্রিকেট অনুরাগী ও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা ক্রিকেটের উজ্জ্বল ভাবমূর্তি গড়ায় বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলসহ সকল ক্রিকেটারের প্রতি সম্মানজনক আচরণ করে যাবেন।’

Add comment

Security code
Refresh


advertisement