আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 58 মিনিট আগে

হারতে হারতে খুব নাজুক পরিস্থিতিতে পড়ে গিয়েছিলেন মুশফিকুর রহিমরা। বাজে সময়ের অন্ধকারে নিমজ্জিত হয়েছিলো পুরো দল। ব্যাটিং খারাপ হচ্ছিলো তো বোলিং আরো বেশি খারাপ হচ্ছিলো। সঙ্গে ছিলো ফিল্ডিং ব্যর্থতা। ক্রিকেটারদের চোখে-মুখেও নেমে এসেছিলো রাজ্যের অন্ধকার। একটা জয়ের হাহাকার শোনা যাচ্ছিলো ক্রিকেটাঙ্গনে কান পাতলেই। অবশেষে সেই জয় এসেছে এবং অন্ধকারও কেটে গেছে। কিন্তু ক্ষুধা কমেনি মুশফিকদের।

bangladesh aims more success in sri lanka

নিদাহাস ট্রফিতে শ্রীলঙ্কার দেয়া ২১৫ রানের লক্ষ্য দুই বল বাকি থাকতে পেরিয়ে যাওয়ার অসাধারণ ম্যাচের পর মাহমুদুল্লাহ বলেছিলেন, অনেক হারের পর একটা ম্যাচ জিতে তারা স্বস্তি পাচ্ছেন। কিন্তু উচ্ছ্বাসে ভেসে যাওয়ার কোনো সুযোগ নেই বলেও মন্তব্য করেছিলেন অধিনায়ক।

মঙ্গলবার অনুশীলনের ফাঁকে বাংলাদেশ অধিনায়ক বলেন, ‘আমরা সিরিজে আসার আগে ফাইনাল খেলাকে লক্ষ্য বানিয়েছি। আমরা ফাইনালে যেতে চাই। একটি ম্যাচ জিতে আমরা অনেক কিছু করে ফেলেছি, এমন নয়। আমাদের পা মাটিতেই আছে।’

মাহমুদুল্লাহ আরো বলেন, ‘আমাদের টি-টোয়েন্টি পারফর্ম নিয়ে অনেক প্রশ্ন আছে। আমরা ধীরে ধীরে সেই প্রশ্ন সরিয়ে ফেলতে চাই এবং দল হিসেবে আমরা বাংলাদেশি ব্র্যান্ডের ক্রিকেট খেলতে চাই।’

২০১৫ সালের বিশ্বকাপ থেকে গত বছরের শেষে দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলে আসছিলো বাংলাদেশ। সেই ধারা ব্যহত হয় গত বছরের শেষ দিকের দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে। সেই দুঃস্বপ্নের সফর থেকে ফিরে ঘরের মাঠেও সফলতার মুখ দেখতে ব্যর্থ হন তামিম-মুশফিকরা। এই পরিস্থিতিতে নিদাহাস ট্রফি আসে কঠিন এক চ্যালেঞ্জ হয়ে। যে চ্যালেঞ্জ শুরু হয় ভারতের কাছে হেরে। তবে লঙ্কানদের বিপক্ষে ধরা দেয় অবিশ্বাস্য জয়। যা এখন আরো বেশি সফলতার জন্য ক্ষুধার্ত করে তুলছে মুশফিকদের।

Add comment

Security code
Refresh