আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 26 মিনিট আগে

জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট কোন পথে যাচ্ছে তার একটা প্রমাণ্য দলিলই হয়ে যাচ্ছে পাকিস্তানের বিপক্ষে তাদের ওয়ানডে সিরিজটা। প্রথম তিন ম্যাচে গো-হারা হারার পর, চতুর্থ ম্যাচে আরো বড় হার সহ্য করতে হলো জিম্বাবুয়েকে। এবার এক ফখর জামানের রানটাই করতে পারলো হ্যামিল্টন মাসাকাদজার দল।

fakhar zaman hits double ton as first pakistani

শুক্রবার পাঁচ ম্যাচ সিরিজের চতুর্থটিতে আগে ব্যাটিং করে রেকর্ডের পাতায় একের পর এক ঝড় তুলে ৩৯৯ রান করে পাকিস্তান। নিজেদের ইতিহাসের সর্বোচ্চ ওয়ানডে রান করার পথে ওপেনিংয়ে সবচেয়ে বেশি রান করার বিশ্বরকের্ড গড়েন দুর্দান্ত ফর্মে থাকা ফখর জামান ও ইমাম উল হক। তারা প্রথম ওপেনিং জুটি হিসেবে ওয়ানডেতে ৩০৪ রান করেন। এর আগে আর কখনোই ওয়ানডে ওপেনিংয়ে ৩০০-এর বেশি রান আসেনি। এতো দিন সর্বোচ্চ রানের ওয়ানডে ওপেনিং জুটির রেকর্ড ছিলো ২৮৬ রানের। সনাথ জয়সুরিয়া ও উপুল থারাঙ্গা এই রান করেছিলেন।

প্রথম তিন ম্যাচে জিম্বাবুয়েকে একবারও মনে হয়নি যে, তাদের এই পাকিস্তানের বিপক্ষে লড়ার ক্ষমতা আছে। সেই ধারা অব্যাহত থাকলো সিরিজের চতুর্থ ম্যাচেও। যখন ৪০০ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে তারা গুটিয়ে গেলো মাত্র ১৫৫ রানে।

ওপেনিংয়ে নেমে ফখর জামান অপরাজিত থাকেন ২১০ রান করে। এটি পাকিস্তানের কোনো ব্যাটসম্যানের প্রথম ওয়ানডে ডাবল সেঞ্চুরি। এতোদিন পাকিস্তানের সর্বোচ্চ ওয়ানডে ইনিংসের মালিক ছিলেন সাঈদ আনোয়ার। ২৪ বছর আগে ভারতের বিপক্ষে তিনি করেছিলেন ১৯৪ রান। বহুদিন তার ওই ইনিংস ওয়ানডে ইতিহাসেরই সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ইনিংস হিসেবে টিকে ছিলো।

ব্যাট হাতে রেকর্ডের বন্যা বইয়ে দেয়ার পর জিম্বাবুয়ের কাছ থেকে যে প্রতিদ্বন্দ্বিতার আশা করেছিলো পাকিস্তান, তার অর্ধেকের অর্ধেকও দেখাতে পারেনি মাসাকাদজার দল। দ্বিতীয় সারির জিম্বাবুয়ে উড়ে গেছে ২৪৪ রানের বিশাল ব্যবধানে।

রান পাহাড়ের নিচে চাপা পড়া জিম্বাবুয়ে সামান্য নড়াচড়া করার যে শক্তিটুকু নিয়ে ব্যাটিংয়ে নেমেছিলো, তাও শুষে নেন শাদাব খান। তিনি আট ওভার চার বলে মাত্র ২৮ রান দিয়ে চারটি উইকেট তুলে নেন। উসমান খান ও ফাহিম আশরাফ নেন দুটি করে উইকেট।

Add comment

Security code
Refresh