আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 06 মিনিট আগে

ধ্রুপদী লড়াইটা বুধবার রাতে। নক আউট পর্বের প্রথম লেগের এ মহারণটা ঘিরে সমর্থকদের রোমাঞ্চ বৃহস্পতির তুঙ্গে। উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোর সবচেয়ে বড় আকর্ষণও রিয়াল মাদ্রিদ-প্যারিস সেন্ট জার্মেই (পিএসজি) দ্বৈরথ। তবে মাঠের লড়াইয়ের আগে শুরু হয়ে গেছে তাদের কথার লড়াই। প্রত্যাশার চাপ মাথা থেকে ঝেরে ফেলতে কৌশলি হয়ে উঠেছে দুই দলই।

real madrid and psg set to play

ইউরোপ সেরার দৌড়ে এবারের মৌসুমে বাজির দরে শুরু থেকেই শীর্ষে আছে পিএসজি। এই মৌসুমের শুরু থেকেই ফর্মের তুঙ্গে আছে প্যারিসের ক্লাবটি। তাছাড়া নেইমার, এমবাপ্পে ও কাভানি ত্রয়ীতে গড়া আক্রমণভাগ বিশ্বের যে কোনো বিদপসীমায় ঝড় বইয়ে দিতে সক্ষম। পিএসজির এই আক্রমণভাগই মূলত শিরোপা জয়ে দৌড়ে এগিয়ে রাখছে তাদের। নক আউট পর্বের শুরুতেই পিএসজি নামক সেই বাঘের সামনে পড়ে গেছে রিয়াল মাদ্রিদ। লিগের ইতিহাসে সর্বোচ্চ ১২ বার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে রিয়াল।

টুর্নামেন্টের ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নও তারাই। সেই দলটার ঘরোয়া লিগে যতই বাজেবস্থা থাকুক না কেন ইউরোপের মঞ্চে রিয়ালকে ঘিরে বাড়তি প্রত্যাশা থাকছেই। কিন্তু এই চাপটা নিতে চাইছেন না দলের আক্রমণভাগের প্রধান সারথি ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। বলেছেন, ‘রিয়াল মাদ্রিদ অনেক অভিজ্ঞ এবং শক্তিশালী দল। আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। কারণ আমরা দারুণ একটা দলের বিপক্ষে খেলতে যাচ্ছি। প্রতিপক্ষ হিসেবে আমরা পিএসজিকে সম্মান করছি। তবে আমাদের ঐক্যবদ্ধ থাকাটা জরুরি।’

রিয়াল সোসিয়েদাদকে উড়িয়ে দেওয়া ম্যাচে দলের ৫ গোলের ৩টিই করেছেন রোনালদো। ওদিকে দারুণ জয় দিয়ে নিজেদের প্রস্তুতি সেরে রেখেছেন নেইমার-কাভানি-এমবাপ্পেওরাও। তাদের দারুণ ফর্ম জমজমাট একটা লড়াইয়ের আভাসই দিচ্ছে। দুই দলের সাম্প্রতিক ফর্ম অবশ্য ম্যাচে পিএসজিকেই এগিয়ে রাখছে। কেউ কেউ তো এখনই পারলে ফ্রেঞ্চ ক্লাবটিকে কোয়ার্টার ফাইনালে বসিয়ে দেয়। কারণ ইউরোপ কিংবা ফ্রান্স সবখানেই সমানতালে পারফর্ম করেছে পিএসজি।

পক্ষান্তরে লা লিগা, কোপা ডেল রেতে রীতিমতো ধুঁকতে হয়েছে রিয়ালকে। তবু দলটা রিয়াল মাদ্রিদ বলেই সবোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করছে পিএসজি। দলের আর্জেন্টাইন উইঙ্গার অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়া সতীর্থদের সাবধান করে বলেছেন, ‘চ্যাম্পিয়নস লিগে এলেই বদলে যায় রিয়াল। লা লিগায় যেমন অবস্থাতেই থাকুক না কেন ওরা জায়ান্ট দল। এই ধরণের প্রতিযোগিতায় ওরা সবসময় সেরা পারর্মটাই করে। এটা ঘরোয়া লিগের চেয়ে অনেক আলাদা।’

একটা সময় রিয়ালের আক্রমণভাগের একজন সারথি ছিলেন ডি মারিয়া। আর্জেন্টাইন উইঙ্গার ভালোভাবেই জানেন রিয়াল সম্পর্কে। তিনি বলেছেন, ‘তাদের বিপক্ষে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ রাখা সবসময়ই কঠিন। প্রতিপক্ষকে খেলার কোনো সুযোগই দিতে চায় না তারা। তাই আমাদের খেলার প্রতি পূর্ণ মনোনিবেশ থাকতে হবে। মৌসুমের শুরু থেকে যেভাবে পারফর্ম করে আসছি সেগুলোর পুণরাবৃত্তি করতে হবে। রক্ষণভাগটা আরো আাঁটসাঁট রাখতে হবে। কারণ আমরা জানি রিয়ালের মেধা এবং সামর্থ যে কোনো সময় ম্যাচের চিত্রটা বদলে দিতে পারে।’

Add comment

Security code
Refresh


advertisement