আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 15 মিনিট আগে

আধুনিক ক্রিকেটের জীবন্ত কিংবদন্তি সাবেক ভারতীয় ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকারের মেয়ে সারাকে উত্যক্ত করেছেন এক বাঙালি যুবক। হয়রানির দায়ে শেষ পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের ওই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

sachin tendulkar with his daughter

থানায় দায়ের করা মামলা থেকে জানা যায়, দেবকুমার মাইতি নামের ৩২ বছর বয়সী ওই যুবকের বাড়ি পশ্চিম বঙ্গের পূর্ব মেদিনীপুরে। বেকার যুবকটি শচীন টেন্ডুলকারের বাড়ি ও অফিসের ফোন নাম্বার সংগ্রহ করে বার বার কল করতেন। ফোনে তিনি সারাকে বিয়ে করতে চাইতেন।

পুলিশের বরাত দিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যম জানায়, গত ২ জানুয়ারি মাইতি নামে ওই ব্যক্তি টেন্ডুলকারের বাড়িতে অন্তত ২০ বার ফোন করেন। শুধু তাই নয় তাকে ফোনে নিষেধ করা সত্তেও তিনি সারা টেন্ডুলকারের সঙ্গে কথা বলতে চান। এমনকি তাকে বিয়ের প্রস্তাব দেন। বিয়ে না দিলে সারাকে অপহরণ করার হুমকি দেন।

শচীন নিজের মেয়েকে উত্যক্ততার অভিযোগ এনে বান্দ্রা থানায় মামলা করেন। পরে পুলিশ অনুসন্ধান করে মেদিনীপুরে মাইতির অবস্থান চিহ্নিত করে। শেষে তাকে গ্রেপ্তার করে মুম্বাইয়ে নিয়ে আসা হয়। পরে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আজ সোমবার অভিযুক্তকে আদালতে হাজির করা হয়।

আদালতে দাড়িয়ে মাইতি দাবি করেন, শচীন টেন্ডুলকার তার শ্বশুর। জানা গেছে, মাইতি একটি ক্রিকেট ম্যাচ দেখতে গিয়ে সারার প্রেমে পড়েন। তবে অভিযুক্ত মাইতির পরিবার জানিয়েছে দীর্ঘদিন ধরে তিনি মানসিক সমস্যায় ভুগছেন। তবে মাইতি কীভাবে শচীনের বাসার ফোন নম্বর পেলেন সেটি তদন্ত করছে পুলিশ।

Add comment

Security code
Refresh