আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 37 মিনিট আগে

মার্কিন হামলার কারণে সিরিয়ায় কোনো রুশ কর্মী ক্ষতিগ্রস্থ হলে মস্কো তার পাল্টা জবাব দেবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন রাশিয়ার একজন শীর্ষস্থানীয় জেনারেল। রাশিয়াভিত্তিক সংবাদ সংস্থা রিয়াকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এ হুঁশিয়ারি বার্তা দিয়েছেন রুশ জেনারেল স্টাফ ভ্যালারি গ্যারাসিমভ।

troop

জাতিসংঘে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত নিকি হ্যালি সম্প্রতি সিরিয়ায় একক সিদ্ধান্তে হামলা চালানোর সতর্কবার্তা দেয়ার পরপরই রাশিয়ার পক্ষ থেকে এ পাল্টা হুঁশিয়ারি বার্তা দেয়া হলো।

২০১৭ সালে রাসায়নিক হামলার অভিযোগে সিরিয়ার সরকার নিয়ন্ত্রিত একটি বিমানঘাঁটিতে মার্কিন হামলার প্রতি ইঙ্গিত করে গত ১২ মার্চ, সোমবার জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে দেয়া বক্তব্যে নিকি হ্যালি বলেন, ‘নিরাপত্তা পরিষদ সিরিয়া সংকট মোকাবেলায় ব্যর্থ হলে ওয়াশিংটন একাই পদক্ষেপ নেবে।’

নিকি হ্যালির এই প্রচ্ছন্ন হুমকির পর রুশ ভিত্তিক বার্তা সংস্থা রিয়ায় প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, বর্তমানে সিরিয়ার বিভিন্ন সামরিক স্থাপনা ও রাজাধানী দামেস্কে বহু সংখ্যক রুশ সামরিক কর্মকর্তা ও উপদেষ্টা অবস্থান করছেন। তাই এমন অবস্থায় রাশিয়ার কোন কর্মকর্তা মার্কিন হামলায় ক্ষতিগ্রস্থ হলে রাশিয়া তা মেনে নেবে না।

এ বিষয়ে রুশ জেনারেল স্টাফ জেনারেল ভ্যালরি বলেন, ‘রাশিয়ার সমর্থনে সিরিয়া সরকার বেসামরিক নাগিরিকদের ওপর গণহত্যা চালাচ্ছে, এমন তথা কথিত অভিযোগ বিশ্ব সমাজের কাছে তুলে ধরে তা প্রমাণ করার চেষ্টা করছে আমেরিকা। মস্কোর কাছে নির্ভরযোগ্য তথ্য রয়েছে যে, সন্ত্রাসীরা (আসাদ সরকার বিরোধীরা) বেসামরিক ব্যক্তিদের ওপর রাসায়নিক হামলা চালানোর পর এর দায়ভার সিরিয় সরকারের ওপর চাপানো চেষ্টা করছে।’

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে পাল্টা অভিযোগ তুলে এ রুশ কর্মকর্তা বলেন, ‘সিরিয়ায় রাসায়নিক হামলার জন্য দেশটির সরকারি বাহিনীকে দোষী করার চেষ্টা চালাচ্ছে আমেরিকা। অথচ ওয়াশিংটন দামেস্কে (সিরিয়ার রাজধানী) সরকার নিয়ন্ত্রিত এলাকায় ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পরিকল্পনা করছে।’

Add comment

Security code
Refresh