আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 51 মিনিট আগে

লন্ডন থেকে বার্লিন যেতে বিমানে উঠেছিল ভারতীয় দুটি পরিবার। একটি পরিবারে স্বামী-স্ত্রীর সঙ্গে তিন বছরের শিশু। বিমানে ওঠার পর থেকেই বাচ্চাটা কাঁদতে শুরু করে। তার কান্না থামানো যাচ্ছিল না। কিন্তু এজন্য দুই দুইটি ভারতীয় পরিবারকেই যে বিমান থেকে নেমে যেতে হবে, তা হয়তো ঘুণাক্ষরেও ভাবেনি তারা।

british Airways indian deport

বিমান থেকে শুধু নামিয়ে দেয়াই নয়, তাদের প্রতি জাতিবিদ্বেষ মূলক মন্তব্যও করা হয় বলেও অভিযোগ করেন ওই শিশুর বাবা। ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের বিরুদ্ধে গুরুতর এই অভিযোগ করেছেন ভারতের পরিবহন ও জাতীয় সড়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব পদমর্যাদার ওই কর্মকর্তা। খবর: আনন্দবাজার।

ব্রিটিশ বিমান সংস্থায় অভিযোগ জানানোর পাশাপাশি ভারতের বেসরকারি বিমান পরিবহনমন্ত্রী সুরেশ প্রভুকে চিঠি দিয়ে ঘটনার বিবরণ জানিয়েছেন ওই শিশুর বাবা।

চিঠিতে তিনি বলেন, বিমান উড্ডয়নের সময়ও কান্না বন্ধ ন হলে কেবিন ক্রুদের কয়েকজন তাদের কাছে ছুটে আসেন এবং বাচ্চাকে বকাবকি করতে শুরু করেন। এতে সে ভয় পেয়ে আরো জোরে কাঁদতে শুরু করে। পেছনের আসনে বসা আরেকটি ভারতীয় পরিবারও বাচ্চাকে চুপ করানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু তাতেও কোনো কাজ হয়নি।

শিশুর বাবার অভিযোগ অভিযোগ, বিমানের ওই ক্রুরা তাদের উদ্দেশে চিৎকার করে জাতিবিদ্বেষমূলক মন্তব্য করতে থাকেন। এমনকি কান্না বন্ধ না করলে জানালা দিয়ে বাচ্চাকে ছুড়ে ফেলারও হুমকি দেন।

একপর্যায়ে বিমানকর্মীরা নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে বিমান টার্মিনালে দাঁড় করান। কয়েকজন নিরাপত্তারক্ষী এসে তাদের বোর্ডিং পাস কেড়ে নেন এবং ওই দুই ভারতীয় পরিবারকেই বিমান থেকে নামিয়ে দেন।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের এক মুখপাত্র বলেন, ‘আমরা কোনো ধরনের বৈষম্য বরদাশত করি না। গুরুত্বের সঙ্গে এই অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’

Add comment

Security code
Refresh