আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 26 মিনিট আগে

সাংবাদিক জামাল খাশোগি নিখোঁজ হওয়ার রহস্য উদঘাটন না হওয়া পর্যন্ত তুরস্ক বসে থাকবে না বলে সৌদি আরবের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়্যিপ এরদোয়ান। বৃহস্পতিবার তুর্কি সংবাদপত্র হুররিয়াতকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

erdoyan

এরদোয়ান বলেন, ‘তুরস্কের গোয়েন্দারা খাশোগি নিখোঁজ হওয়ার সব সম্ভাবনা তদন্ত করছে। সৌদি আরবের তদন্ত বা মৌখিক প্রতিশ্রুতিতে আমরা বসে থাকবো না। ’

উল্লেখ্য, গত ২ অক্টোবর সৌদি বংশোদ্ভূত সাংবাদিক জামাল খাশোগি বিবাহ বিচ্ছেদের কাগজপত্র সংগ্রহ করতে ইস্তাম্বুলের সৌদি দূতাবাসে যান। এরপর তিনি আর বাইরে বের হননি। তুরস্ক কর্তৃপক্ষ বলছে, খাশোগিকে দূতাবাসের ভেতরেই হত্যা করে লাশ গুম করা হয়েছে। এদিকে সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান বলেছেন, ‌‌‘খাশোগি খুব অল্প সময় তাদের দূতাবাসে ছিলেন, এরপর তিনি বেরিয়ে পড়েন।’

প্রায় সপ্তাহ ব্যাপী হাঙ্গেরি সফর শেষে তুরস্কে ফিরেছেন এরদোয়ান। এসেই তিনি খাশোগির নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, ‘আমরা এই ঘটনায় সব দিকই তদন্ত করছি। যতদূর সম্ভব আমরা দেখবো, দমে যাবো না। কারণ আমাদের দেশে এমন কিছু আগে ঘটেনি।’

তিনি প্রশ্ন তুলে বলেন সৌদি দূতাবাসের কাছে সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ চাইলে তারা দিতে পারেনি। বলেছে, তারা নাকি শুধু ফুটেজ লাইভ করে। ‘সৌদি দূতাবাস আমাদের কী বোঝাতে চাচ্ছে? তারা সিসি ক্যামেরা চালায় আর তার রেকর্ড রাখে না? এটা তো হতে পারে না।’

খাশোগি নিখোঁজের ঘটনায় তুরস্ক ও সৌদি আরবের কূটনৈতিক সম্পর্ক আরও একবার ধাক্কা খেলো। বেশ কয়েক বছর ধরেই এই দুই দেশের সম্পর্ক ভালো যাচ্ছে না। বিশেষ করে সৌদি আরব ও তার মিত্ররা কাতারের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করলে তুরস্ক কাতারের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয়। ওই সময় থেকে দুই দেশের সম্পর্কের অবনতি ঘটে।

Add comment

Security code
Refresh