আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 20 মিনিট আগে

আফগানিস্তানের এক সেনা কর্মকর্তা আমেরিকান আর্মির মেজরের স্ত্রী ও তার সাত সন্তানদের উদ্দেশে হৃদয়গ্রাহী চিঠি লিখেছেন। আল-জাজিরার খবরে বলা হয়, গেলো সপ্তাহে মার্কিন ওই মেজর আফগান সেনাদের প্রশিক্ষণ দিতে কাবুলে অবস্থানকালীন সন্ত্রাসী হামলায় নিহত হন।

us meyor taylor

ব্রেন্ট টেইলর যুক্তরাষ্ট্রের সল্ট লেক সিটির উতাহ নেশন্যাল গার্ডের প্রধান ও সিটি মেয়র ছিলেন। টেইলর মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থার একজন মেজর। এ বছরের জানুয়ারিতে তিনি আফগানিস্তানে আসেন। এরপর আফগান পাইলট মেজর আব্দুল রাহমান রাহমানি ও টেইলর একসঙ্গে দীর্ঘ সময় অতিবাহিত করেছেন। তিনি আফগানিস্তান ও ইরাকে দুবার সফর করেছেন। গত সোমবার সন্ধ্যায় যুক্তরাষ্ট্রের আটলান্টায় ফেরার কথা ছিল। কিন্তু এর দুইদিন আগে শনিবার নিহত হন তিনি।

টুইটারে টেইলরের শ্যালক জ্যারিড প্যাককে চিঠিটি পাঠান আফগান পাইলট মেজর আব্দুল  রহমানি। তিনি লিখেন, আমাদের দুজনের মধ্যে হৃদতার সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। আপনার স্বামী ও তোমাদের বাবাকে হারিয়ে কতটা মর্মাহত তা পুরো আফগানিস্তান অনুভব করছে। আমরা সত্যিই মর্মাহত। আপনি ও টেইলর আমাদের দেশের জন্য যে ত্যাগ করেছেন তা সত্যিই অভাবনীয়। কিন্তু আমরা তাকে নিরাপত্তা দিতে পরিনি।’

us meyor taylor afg pailot

চিঠিতে আফগান পাইলট উল্লেখ করেন, গত ৩০ বছরে যুদ্ধে তার পরিবারের আটজন সদস্য মারা গেছেন। নিজেও একাধিকবার গুরুতর আহত হয়েছেন। গত জানুয়ারিতে তিনি ও তার স্ত্রী জেনিন সাত সন্তান নিয়ে আফগানিস্তান ও ইরাকে আসেন। 

টেইলরের শ্যালক জ্যারিড প্যাক জানান, ‘ওই চিঠি আমাদের জন্য স্বর্ণের মত’। ওই চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে টেইলর কেন আফগানিস্তানে গিয়েছিলেন।’

আফগান ও আন্তর্জাতিক সেনাদের যৌথ কার্যক্রমের ১৭ বছরে এমন হামলা নতুন নয়। চলতি বছরের শুরু থেকেই ন্যাটো চেষ্টা করছে তালেবানের সঙ্গে সমঝোতায় আসতে, কিন্তু এমন সময় এ হামলা সমঝোতায় চিড় ধরাবে বলে আশঙ্কা করছেন বিশ্লেষকরা।

Add comment

Security code
Refresh