advertisement
আপনি দেখছেন

অমর একুশে গ্রন্থমেলায় দারুণ সাড়া ফেলেছে জামান মনিরের গল্পগ্রন্থ ‘নাটক খোরের গল্প’। হঠাৎ পেঁয়াজের আকাশচুম্বী দাম। কেনার মুরোদ নেই পুরুষের, স্বাদহীনতার রোষানলে স্ত্রী— ফসিয়ারের বর্ণনায় দাম্পত্যের সুক্ষ্ম বিষয় লেখকের কলমে উঠে এসেছে। কৈ মাছ কিনতে গিয়ে মুবারক যেন আমাদের রাজনীতির বাস্তবচিত্র প্রকাশ করেছেন। ক্ষমতাশালীরা অহংকারী ও স্বৈরাচারী হয়, ক্ষমতা চিরস্থায়ীর মন্ত্রে তারা সাধারণ জনগণের ওপর নিপীড়ন চালায়। কিন্তু আখেরে ব্যর্থ ও ক্ষমতাচ্যুত হয়ে আস্তাকুঁড়ে নিক্ষিপ্ত হয়; একেই বলে ‘কৈ মাছের প্রাণ’। লেখকের ‘কুকুরপ্রেমী ও বাছুরবঞ্চিত এক গ্লাস গরম দুধ’ তথাকথিত পরিবেশবাদীদের জন্য চপেটাঘাত, যারা আপনার-আমারই চারপাশে রয়েছে।

zaman monir natok khorer golpoজামান মনিরের ‘নাটক খোরের গল্পে’ দারুণ সাড়া

অবসর জীবনের নিসঙ্গতা দূর ও পরিবার-পরিজনের কাছে গুরুত্ব বাড়ানোর দাওয়াই যেমন রয়েছে; তেমনি টাকা দিয়ে বই প্রকাশ না করার প্রতিবাদ ও কৌশল শিখিয়েছেন আলীমুদ্দিন চরিত্রের ‘স্বপ্নে পাওয়া গল্প সিরিজ’। আসক্তির নিয়ন্ত্রণ মানুষের পক্ষে কঠিন। একটিতে বাঁধ আরেকটিতে ধাবিত করে। নাটকের আসক্তি ছাড়তে গিয়ে আব্দুল করিম এখন নিষিদ্ধ আসক্তিতে মত্ত, চিকিৎসা করাতে গিয়ে স্ত্রী নিজেই নিজের পায়ে কুড়াল মারেন— এ যেন সমাজেরই চিত্র; তেমনি গৃহকর্মীর প্রতি স্বামীর আসক্তি টের পেয়ে নিজে দুজনের বিয়ের অয়োজন করেন স্ত্রী।

এভাবে একের পর এক গল্পে লেখক তুলে ধরেছেন যাপিতজীবনের হাসি-কান্না, প্রেম-ভালোবাসা, বিরহ-বিচ্ছেদের নানা বর্ণচ্ছটা। বিপরীতে নানা অসঙ্গতি সামনে এনে প্রথা ভাঙার দিশাও দেখিয়েছেন। প্রথম গল্পগ্রন্থ এতটা সাবলীল ও ঝরঝরে যে, এক বসায় পড়ে ফেলতে পারবেন পাঠক। ‘বেহুলা বাংলা’ থেকে প্রকাশিত বইটির প্রচ্ছদ করেছেন হাজ্জাজ তানিন। বইটি বাংলা একাডেমির অমর একুশে গ্রন্থমেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে ৫২১-৫২৩ নম্বর বেহুলা বাংলা প্রকাশনীর স্টল ছাড়াও অনলাইন পরিবেশক রকমারিতে পাওয়া যাচ্ছে।

জামান মনিরের জন্ম মাগুরার মহম্মদপুরে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাজবিজ্ঞানে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর, পরে আইনেও স্নাতক করেছেন। বর্তমানে কর্মরত আছেন জনতা ব্যাংকে।