advertisement
আপনি দেখছেন

আগামী অর্থবছরের বাজেটে মূসক বা ভ্যাট নিয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) ও ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফেডারেশনের (এফবিসিসিআই) যৌথ পরামর্শক সভায় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সঙ্গে হট্টগোলের ঘটনা ঘটেছে।

finance ministry

রোববার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত এই সভায় উপস্থিত ব্যবসায়ী ঐক্য পরিষদের সভাপতি আবু মোতালেব বলেন, 'ভ্যাট নিয়ে ব্যবসায়ীদের প্রশিক্ষণের কোন ব্যবস্থা করা হয়নি। যা হয়েছে, তা শুধুমাত্র লোক দেখানো ছিল। প্রশিক্ষণ ছাড়া চক বাজারের ব্যবসায়ীরা কিভাবে জানবে ইলেকট্রনিক ক্যাশ রেজিস্ট্রার কী?'

তিনি বলেন, 'ভ্যাট নিয়ে এনবিআর ও এফবিসিসিআই কাজ করছে। কিন্তু ফলাফল শূন্য। এফবিসিসিআই যে প্রস্তাব দিয়েছে তা না মানা না হলে আমরা আন্দোলন করব।'

আবু মোতালেবের এমন বক্তব্য থামিয়ে দিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, 'বাংলাদেশে নিবন্ধিত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আট লাখ। এর মধ্যে মাত্র ৩২ হাজার ভ্যাট দেয়। আপনার ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পে কতজন ভ্যাট দেন যে অযথা আপনারা আন্দোলন করবেন? আপনারা আন্দোলন করলে আমরা তা দমন করব।'

অর্থমন্ত্রীর এই বক্তব্যের পরই ব্যবসায়ীরা হইচই শুরু করেন। অনেকেই উচ্চস্বরে বলতে থাকেন, 'আন্দোলন দমনের হুমকি দেবেন না।' সম্মেলন কক্ষে ব্যবসায়ীদের শান্ত করতে এফবিসিসিআইয়ের সহ-সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিনকে হস্তক্ষেপ করতে হয়।

ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেন, 'আমরা আশা রাখছি সরকার ব্যবসায়ীদের ন্যায্য দাবি মেনে নেবেন। আমরা এখনও বাজেট দেখিনি। ফলে বাজেটে কী থাকছে আমরা এখনও জানি না। আপনারা ধৈর্য্য ধরুন।'