advertisement
আপনি দেখছেন

আজ মহান মে দিবস। সারাবিশ্বের শ্রমজীবী মানুষের অধিকার আদায়ের দিন এই পহেলা মে। এই দিনটি উপলক্ষে সারাদেশের সমস্ত অফিস-আদালত, কলকারখানায় ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

may day

দিনটিকে সামনে রেখে ইতোমধ্যেই রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, জাতীয় সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা ও বিভিন্ন রাজনৈতিক দল পৃথক পৃথক বাণী দিয়েছেন।

১৮৮৬ সালের এই দিনে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগোতে দৈনিক ১৬ ঘণ্টা কাজের পরিবর্তে ৮ ঘণ্টা কাজের দাবিতে রাস্তায় নেমে আসে প্রায় তিন লাখ শ্রমজীবী-কর্মজীবী মানুষ। শ্রমিকদের হটাতে পুলিশ নির্বিচারে গুলি চালায় মিছিলের ওপর। আহত হয় বহু মানুষ। এরই মধ্যে ৬ জন শ্রমিক নেতাকে ধরে নিয়ে ফাঁসিতে ঝুলানো হয়। আন্দোলন ফুলে ফেঁপে ওঠে। পরবর্তীতে ১৮৮৭ সালে স্বীকৃতি পায় শ্রমিকদের এই দাবি।

সেই তখন থেকেই প্রতি বছর শ্রমজীবী মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য পহেলা মে দিনটিকে বেছে নেয়া হয়েছে। এই দিনকে সারাবিশ্বের সমস্ত শ্রমজীবী মানুষ তাঁদের অধিকার আদায়ের দিন হিসেবে পালন করেন।

মে দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশের প্রত্যেকটি রাজনৈতিক দল পৃথক পৃথক কর্মসূচি দিয়েছে। পত্রিকা ও টেলিভিশনগুলো দিবসটির তাত্পর্য তুলে ধরে বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশ এবং বিশেষ অনুষ্ঠান প্রচার করবে।