advertisement
আপনি দেখছেন

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, 'বিএনপি ক্ষমতায় গেলে দ্রব্যমূল্যের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বেতন-ভাতা ও অন্যান্য সুযোগ সুবিধা বাড়ানো হবে।'

khaleda zia in vision 2030

১০ মে আজ বুধবার বিকালে রাজধানীর গুলশানস্থ ওয়েস্টিন হোটেলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী। বক্তব্যে বেগম জিয়া নতুন ধারার, নতুন প্রজন্মের রাজনীতি ও সরকার প্রতিষ্ঠ‍া করতে বিএনপির পরিকল্পনা তুলে ধরেন। পাশাপাশি বেগম জিয়া 'ভিশন-২০৩০' ন‍ামে একটি বিশেষ পরিকল্পনাও তুলে ধরেন।

খালেদা জিয়া বলেন, 'দেশে দক্ষ স্বচ্ছ গতিশীল মেধাবী জবাবদিহিমূলক যুগোপযোগী ও জনমুখী জনপ্রশাসন গড়ে তোলা হবে। মেধার যথাযথ মূল্যায়ন নিশ্চিত করা হবে। চাকরির ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান, নারী ও প্রান্তিক জাতি-গোষ্ঠীর কোটা ছাড়া অন্যান্য কোটা পদ্ধতি বাতিল করা হবে। দেশে ই-গভর্ন্যান্স পূর্ণাঙ্গরুপে চালু করা হবে।

তিনি বলেন, 'দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় কাজ করবে বিএনপি। গণতন্ত্রের চেয়ে উন্নয়ন শ্রেয় এই ধারণার বাইরে গিয়ে রাষ্ট্রক্ষমতা এককভাবে কুক্ষিগত করার অপচেষ্টা জনগণকে নিয়ে প্রতিহত করবে বিএনপি। জাতীয় সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনীতে যে বিতর্কিত ও অগণতান্ত্রিক বিধান যুক্ত করা হয়েছে সেগুলো সংস্কার করা হবে।'

সাড়ে চারটায় শুরু হওয়া এই বক্তব্যে খালেদা প্রতিশ্রুতি দেন, বিএনপি ক্ষমতায় গেলে প্রশাসন, বিচার বিভাগ, পুলিশসহ সর্বক্ষেত্রে সংস্কার এনে স্বচ্ছতা, দক্ষতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করবে। পাশাপাশি জাতীয় ঐকমত্য সৃষ্টি করে জঙ্গিবাদের মূলোৎপাটন, দারিদ্র্য বিমোচন, যুবকদের কর্মসংস্থানের অঙ্গীকার করেন।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ, বিজেপি চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আন্দালিব রহমান পার্থসহ ২০ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতারা।