advertisement
আপনি পড়ছেন

প্রথম প্রক্রিয়ায় স্মার্ট কার্ড পাচ্ছেন না নতুন নিবন্ধন হওয়া ভোটারগণ। নির্বাচন কমিশন থেকে জানানো হয়েছে, ২০১৪-২০১৫ সালের ভোটার তালিকায় যারা নতুন ভোটার হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন এবং তাদের কাছে ভোটার নম্বর থাকা সত্বেও প্রায় এক কোটি মানুষ বঞ্চিত হচ্ছেন স্মার্ট কার্ড পাওয়া থেকে। বিশাল এই ভোটার সংখ্যাকে কখন স্মার্ট প্রদান করা হবে সে বিষয়ে নিশ্চিত করে কিছুই জানায়নি নির্বাচন কমিশন।

natinal id card

এ বিষয়ে ইসি প্রধান কাজী রকিব উদ্দিন আহমদ জানান, 'ভোটার তালিকায় নাম এবং ভোটার নম্বর থাকার পরও নিজেদের সীমাবদ্ধতার ফলে প্রায় এক কোটি মানুষকে স্মার্টকার্ড দিতে পারছি না আমরা। তবে এইসব নতুন ভোটার সবাইকেই একসাথে স্মার্টকার্ড দেয়া হবে। সেটা কবে দেয়া হবে সে ব্যাপারে কিছুই আপাতত বলতে পারছি না।'

নির্বাচন কমিশনের দেয়া তথ্য থেকে জানা যায়, ২০১৪ সালে নতুন করে ৪৭ হাজার নতুন ভোটারকে তালিকাতে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে। পাশাপাশি ২০১৫ তে এসেও এখন পর্যন্ত ৫৪ লাখ ৯৪ হাজার দুইশো পাঁচজন ভোটারকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে এবং এই সংগ্রহের প্রক্রিয়া এখনো চলমান আছে। নতুনভাবে তালিকাতে অন্তর্ভূক্ত হওয়া এই বিশাল সংখ্যক ভোটারের কাউকেই স্মার্ট কার্ডের অধীনে নিয়ে আসা হয়নি।

বিষয়টি নিয়ে সিইসি আরো জানান, 'শিগগিরই প্রায় এক কোটি নতুন ভোটারকেও স্মার্ট কার্ড প্রদানের প্রক্রিয়ায় হাত দিবো আমরা। তবে যে পর্যন্ত তারা স্মার্ট কার্ড তারা হাতে পাবে না সে পর্যন্ত এই ভোটারগণের কাছে যে এনআইডি নম্বর দেয়া হবে সেটা ব্যবহার করেই যাবতীয় প্রয়োজনীয় কাজ সারতে পারবে।'

 

আপনি আরো পড়তে পারেন 

১লা নভেম্বর থেকে জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা

লন্ডনে খালেদা জিয়ার গাড়িতে হামলার খবর বিএনপি'র অস্বীকার

বিবিসি, সিএনএন-এর সাংবাদিকরা রাবিশ: ড. মিজানুর রহমান