আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 58 মিনিট আগে

দ্বিতীয় ধাপে ১৬ জেলা- ঠাকুরগাঁও, রংপুর, গাইবান্ধা, দিনাজপুর, বগুড়া, নওগাঁ, পাবনা, সিলেট, মৌলভীবাজার, গোপালগঞ্জ, ফরিদপুর, চট্টগ্রাম, রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি, বান্দরবন ও কক্সবাজারের ১১৬ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে।

upazila election voting 2nd

সোমবার সকাল ৮টা থেকে শুরু হওয়া ভোট গ্রহণ কোনো রকম বিরতি ছাড়াই চলে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। এখন চলছে ভোট গণনা।

নির্বাচনে কেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের উপস্থিতি ছিল কম। ছিল না দীর্ঘ লাইন। বিচ্ছিন্নভাবে দুই একজন এসে ভোট দিয়ে যাচ্ছিলেন। সিলেট জেলায় ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হলেও ইউএনবি প্রতিনিধি সরেজমিনে ৯টা পর্যন্ত সদর উপজেলার বেশ কয়েকটি কেন্দ্রে কোনো ভোট পড়তে দেখেননি। সেই সাথে মৌলভীবাজার শহরের পিটিআই কেন্দ্রে ৮টা ৪০ মিনিট পর্যন্ত কোনো ভোটারের দেখা মিলেনি বলে সেখানকার ইউএনবি প্রতিনিধি জানিয়েছেন।

এদিকে, জাল ভোটসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ এনে রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি, নানিয়ারচর ও কাউখালী উপজেলায় পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমর্থিত স্বতন্ত্র তিনজন চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ পাঁচজন ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন। দুপুরে স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছে তারা এ ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন।

নির্বাচনে ৩৭৭ জন চেয়ারম্যান, ৫৪৮ জন ভাইস চেয়ারম্যান এবং ৪০০ নারী ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। আর সাত হাজার ৩৯টি কেন্দ্রে ভোটার ছিলেন এক কোটি ৭৯ লাখ নয় হাজার ছয়জন।

দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদের এ নির্বাচনে ২৩ চেয়ারম্যান, ১৩ ভাইস চেয়ারম্যান এবং ১২ নারী ভাইস চেয়ারম্যান ইতিমধ্যে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

নির্বাচন পূর্ববর্তী এক সংবাদ সম্মেলনে রবিবার রাজধানীর নির্বাচন ভবনে ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ জানান, পার্বত্য চট্টগ্রাম এলাকার পরিস্থিতি বিবেচনা করে নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবন জেলার ২৫ উপজেলায় তিন দিনের জন্য সেনা মোতায়েন করা হয়েছে।

নির্বাচনকে ঘিরে শনিবার থেকে পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি ও কোস্টগার্ড সদস্যরা মোতায়েন রয়েছেন। বুধবার পর্যন্ত তারা দায়িত্ব পালন করবেন। আনসার সদস্যরা ভোটের দিন কেন্দ্র পাহাড়া দেন।

এছাড়া প্রতি উপজেলায় একজন বিচারিক ম্যাজিস্ট্রেট এবং প্রতি তিনটি ইউনিয়ন পরিষদে একজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পাঁচ দিনের জন্য দায়িত্ব পালন করছেন।

এর আগে প্রথম ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচন গত ১০ মার্চ অনুষ্ঠিত হয়। আগামী ২৪ মার্চ তৃতীয় এবং ৩১ মার্চ চতুর্থ ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

এবারের উপজেলা পরিষদ নির্বাচন পাঁচ ধাপে অনুষ্ঠিত হবে। ইসি চারটি ধাপের তফসিল ঘোষণা করেছে।

প্রসঙ্গত, ১৯৮৫ সালে দেশে প্রথম উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এরপর ১৯৯০ সালে দ্বিতীয় এবং ২০০৯ সালে তৃতীয় উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এরপর ২০১৪ সালে দশম সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার পরই চতুর্থ উপজেলা নির্বাচন হয়। ইউএনবি।