advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 32 মিনিট আগে

ঢাকাই চলচ্চিত্রের নব্বইয়ের দশকের সাড়া জাগানো চিত্রনায়ক সালমান শাহের মৃত্যুরহস্য আজও উদঘাটন হয়নি। তার মৃত্যুর পর দায়েরকৃত অপমৃত্যু মামলার অধিকতর তদন্ত প্রতিবেদনের জন্য আগামী ২৩ এপ্রিল দিন ধার্য করেছেন আদালত। আজ সোমবার মামলাটির তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য ছিল। তবে এ বিষয়ে পুলিশ ইনভেস্টিগেশন ব্যুরো (পিবিআই) কোনো প্রতিবেদন দাখিল করেনি। পরে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বাকী বিল্লাহ প্রতিবেদন দাখিলের নতুন করে ২৩ এপ্রিল দিন ধার্য করেন।

salman shah pic

ক্যারিয়ারের মধ্য গগণে থাকা অবস্থায় ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর ইস্কাটনের নিজ বাসায় সালমান শাহ-এর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ সময় তার মরদেহ সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। সালমান শাহর পরিবার বিষয়টিকে হত্যা বলে অভিযোগ করে। সালমান শাহর মা নীলা চৌধুরীর দাবি, স্ত্রীর পরকীয়ার জন্যই সালমান শাহকে হত্যা করা হয়েছে।

ঢাকাই চলচ্চিত্রে অমর চিত্রনায়ক চৌধুরী মোহাম্মদ শাহরিয়ার ইমন ওরফে সালমান শাহ মারা যাওয়ার দুই দশক পেরিয়ে গেলেও আজও এর রহস্য উদঘাটন হয়নি। সালমান শাহ মারা যাওয়ার ঘটনায় সেই সময় অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করেছিলেন তার বাবা প্রয়াত কমর উদ্দিন আহমদ চৌধুরী। তিনিই ১৯৯৭ সালের ২৪ জুলাই ছেলেকে হত্যা করা হয়েছে এমন অভিযোগ এনে মামলাটিকে হত্যা মামলায় রূপান্তরিত করেন।

পরে হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি তদন্ত করতে সিআইডিকে নির্দেশ দেন আদালত। পরে মামলাটি পিবিআই-এর কাছে যায়। ১৯৯৭ সালের ৩ নভেম্বর সালমান শাহ-এর মৃত্যুর ঘটনাটি তদন্ত করে সিআইডি আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেয়। যেখানে এই মহানায়কের মৃত্যুকে আত্মহত্যা বলে উল্লেখ করা হয়। তবে এই প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করেন সালমানের বাবা।

এরপর ২০০৩ সালের ১৯ মে মামলাটি বিচার বিভাগীয় তদন্তে পাঠানো হয়। এরপর প্রায় দীর্ঘ একযুগ মামলাটি বিচার বিভাগীয় তদন্তে থাকে। সর্বশেষ ২০১৮ সালে ৩ আগস্ট ঢাকার সিএমএম বিকাশ কুমার সাহার কাছে বিচার বিভাগীয় তদন্ত প্রতিবেদনে সালমান শাহের মৃত্যুকে অপমৃত্যু হিসেবে উল্লেখ করা হয়। এরপর সালমান শাহের মা নীলা চৌধুরী এই প্রতিবেদনের ওপর নারাজি দাখিল করেছিলেন। সেটির নতুন তারিখ ঘোষণা হলো।

sheikh mujib 2020