advertisement
আপনি দেখছেন

বিভিন্ন মামলায় জব্দ করা আলামত যেখানে ডাম্পিং করা হয় পুলিশি ভাষায় সে স্থানকে 'মালখানা' বলা হয়। এবার পুলিশের নাকের ডগায় থাকা সেই মালখানাতেই চুরির ঘটনা ঘটেছে। তালা ভেঙ্গে চুরির পর মালখানাতে আবার নতুন একটি তালা লাগিয়ে দিয়ে গেছে ওই 'সচেতন' চোর!

ctg court police gudam

ঘটনাটি ঘটেছে চট্টগ্রাম আদালতে জেলা পুলিশের মালখানায়। গতকাল সোমবার (১৮ মার্চ) আদালত ভবনের দ্বিতীয় তলায় মালখানার তালা খুলতে গিয়ে চুরির ঘটনাটি জানাজানি হয়।

এই ঘটনায় তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশ ব্যবস্থা নিলেও কী পরিমাণ আলামত খোয়া গেছে তা এখনও জানাতে পারেনি। প্রাথমিকভাবে মালখানায় থাকা আলামতগুলো তালিকা ধরে মিলিয়ে দেখছে পুলিশ।

ঘটনা প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম জেলা কোর্ট পরিদর্শক বিজন কুমার বড়ুয়া বলেন, সোমবার সকালে মালখানার তালা খুলতে এসে দেখা যায় দরজায় নতুন তালা। সাধারণত মালখানার তালা সিলগালা করা থাকে। কিন্তু সেদিন সিলগালা করা তালাগুলো ছিলো না।

পরে মালখানার দায়িত্বপ্রাপ্ত ম্যাজিস্ট্রেটকে এনে তার অনুমতি নিয়ে তালা ভাঙ্গা হয়। ভেতরে মামলার বিভিন্ন আলামত এলোমেলো পাওয়া গেছে। সেখানে অস্ত্র, গুলি, টাকা, মাদক, সোনাসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ আলামত ছিলো বলে জানা গেছে।

এদিকে মালখানায় চুরির ঘটনায় খলিলুর রহমান ও মো. মনিরুজ্জামান নামে দুই পুলিশ কনস্টেবলকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।