advertisement
আপনি দেখছেন

‘দলীয় ক্যাডার নন, তারা যে শিক্ষক সেটা অনেকেই ভুলে যান’ সদ্য অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ নির্বাচনে (ডাকসু) কিছু শিক্ষকদের ভূমিকা নিয়ে এই মন্তব্য করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ও জন ইতিহাস চর্চা কেন্দ্রের সভাপতি ড. মেসবাহ কামাল।

meshbah kamal ducsu

ডাকসু নির্বাচন কেমন হল এই বিষয়ে জানতে চাইলে রোববার ড. কামাল এই প্রতিবেদককে বলেন, ‘২৮ বছর পর ডাকসু নির্বাচন হল। এটি একটি ইতিবাচক দিক। এতদিন কেন নির্বাচন হল না সেটি একটি প্রশ্ন। আসলে এ দেশে উত্তরাধিকারের রাজনীতিতে কোন দলই চায় না নতুন নেতৃত্ব হোক। স্বৈরাচার এরাশাদের সময় নির্বাচন হয়েছে। কিন্তু গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের পর দীর্ঘ সময় নির্বাচন হয়নি।’

তিনি বলেন, ‘রাষ্ট্রপতিকে ধন্যবাদ জানাই যে, তিনি এ বিষয়টিকে সামনে আনার পর তা এখন সফল হল। নির্বাচন অনুষ্ঠিত হল, এটি একটি কাঙ্ক্ষিত বিষয়। কিন্তু যেভাবে হল সেটি কাঙ্ক্ষিত ছিল না। নির্বাচনে যে পরিমাণ অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে তা হতাশাজনক। বলা হচ্ছে, অন্য সময় জাতীয় নির্বাচনে যেভাবে মিডিয়া ক্যু হয় এখানে সেভাবে হয়েছে ঘোষণা ক্যু।

এই ইতিহাসবিদ বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল স্তরে দলীয় নিয়োগ হওয়ার অভিযোগ রয়েছে। এর ফলে তারা যে দলীয় ক্যাডার নন, তারা যে শিক্ষক সেটা অনেকেই ভুলে যান। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় তো কোন ইউনিয়ন কাউন্সিল নয়, ইউনিয়ন কাউন্সিলেও ভোটের কারচুপি গ্রহণযোগ্য নয়। সচেতনতার কেন্দ্রভূমি হিসেবে শিক্ষার্থীরা এই নির্বাচনকে মেনে নিতে চাইবে না এটাই স্বাভাবিক। নির্বাচন হল, এটি ভাল খবর। কিন্তু যেভাবে নির্বাচন হলে যথাযথ সুফল বয়ে আনবে সেটা হলো না।’