advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 33 মিনিট আগে

আওয়ামী লীগ নেতা এবং নবনির্বাচিত উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানকে সংবর্ধনা দিতে স্কুলের ক্লাস বন্ধ করে শিক্ষার্থীদের নিয়ে লাইনে দাঁড়ালেন শিক্ষকরা। এরপর হাতে ফুল নিয়ে হাটে শোভাযাত্রাও করানো হয়। বুধবার দুপুর বেলায় ঠাকুরগাঁও জেলার হরিপুরের যাদুরাণী বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষকরা এমন কাণ্ড ঘটিয়েছেন।

vice chairman reception

এদিকে এই ঘটনায় শিক্ষার্থীদের কষ্ট হয়েছে অভিযোগ করে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সব অভিভাবকেরা।

স্থানীয়রা জানান, চলমান পঞ্চম উপজেলা নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে হরিপুর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন আবদুল কাইয়ুম। তিনি হরিপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদকও।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নতুন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানকে সংবর্ধনা দিতে বুধবার দুপুর ১২টায় যাদুরাণী বালিকা উচ্চবিদ্যালয় থেকে একটি শোভাযাত্রা বের করা হয়। স্কুলের প্রধান শিক্ষক সুলতান মাহমুদের নেতৃত্বে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা এতে অংশ নেন। তারা হাতে ফুল নিয়ে বিদ্যালয় থেকে শোভাযাত্রা নিয়ে যাদুরাণী হাট হয়ে আমগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে পৌঁছান। এরপর ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল কাইয়ুমের গলায় ফুলের মালা পরান।

স্কুলের একাধিক শিক্ষার্থী জানিয়েছে, স্কুলে ক্লাস বন্ধ রেখে ভাইস চেয়ারম্যানকে সংবর্ধনা দিতে শোভাযাত্রা করার নির্দেশ দেন প্রধান শিক্ষক। তারা প্রচণ্ড রোদের মধ্যে অনেকটা পথ পায়ে হেঁটে আওয়ামী লীগ অফিসে গিয়ে সংবর্ধনা দেন। এ জন্য স্কুলে ক্লাস বন্ধ ছিল।

এদিকে এ ঘটনায় ক্ষোভ ও অসন্তোষ প্রকাশ করে অভিভাবকরা বলছেন, জনপ্রতিনিধিকে সংবর্ধনা দেয়া হতেই পারে। কিন্তু তাই বলে বাচ্চাদের ক্লাস বন্ধ রেখে দীর্ঘ পথ হেঁটে শোভাযাত্রা করতে হবে কেন? এটি তারা মোটেই ঠিক করেননি। এ থেকে কোমলমতি বাচ্চারা কী শিখবে?

তবে এ বিষয়ে জনপ্রতিনিধি আবদুল কাইয়ুম বলেন, ‘শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের এ সংবর্ধনার বিষয়টি আমার জানা ছিল না। দুপুরে দলীয় কার্যালয়ে এসে নেতাকর্মীদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করার সময় তারা এসে ফুল দিয়ে সংবর্ধনা জানায়। তবে স্কুলের ক্লাস বন্ধ করে তাদের এটি করা ঠিক হয়নি।’

এ বিষয়ে মতামত জানতে প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে বেশ কয়েকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি। এমনকি তার মুঠোফোনে একাধিকবার ফোনকল করা হলেও তিনি ধরেননি।

sheikh mujib 2020