advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 14 মিনিট আগে

নিজ দল গণফোরামের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে গিয়ে সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেয়া সুলতান মোহাম্মাদ মনসুর শুক্রবার টুঙ্গিপাড়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধি জিয়ারত করেছেন। সমাধি জিয়ারত শেষে সাংবাদিকদের কাছে তিনি বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। এ সময় জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নির্বাচিতদের নিয়েও কথা বলেন তিনি।

sultan monsur 22 03 2019

সুলতান মনসুর বলেন, আমি বঙ্গবন্ধুর একজন অনুসারী। বিবেকের তাড়নায় এখানে এসেছি। সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নেতা মেনে তার প্রতি শ্রদ্ধা জানানো আমার পবিত্র দায়িত্ব। আমি বঙ্গবন্ধুর কবর জিয়ারত করে মোনাজাত করেছি।

সুলতান মনসুর বলেন, ঐক্যফ্রন্টের জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার আমি একজন প্রতিনিধি। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নীতি-নির্ধারণী সভায় আমি ছিলাম। আমি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে অন্য কোনও রাজনৈতিক দলে যোগ দেইনি। আবার বাংলাদেশ আওয়ামী লীগও আমাকে বহিষ্কার করেনি। আমার শেষ রাজনৈতিক পদ ছিলো আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক।

মনসুর জানান, তিনি বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া যান এবং রাতে সেখানেই থাকেন।

শুক্রবার বেলা ১২টার দিকে তিনি বঙ্গবন্ধুর সমাধি জিয়ারত করেন এবং ফাতেহা পাঠ করেন। পরে বঙ্গবন্ধুসহ তার পরিবারের নিহত সদস্যদের স্মরণে ও তাদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেন তিনি।

জিয়ারত শেষে মনসুর বলেন, আমি মনে করি ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আরও যে নেতারা সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন তারাও আগামীতে শপথ নেবেন। বঙ্গবন্ধুর সমাধিতেও আসবেন।

উল্লেখ্য, মৌলভীবাজার-২ আসন থেকে নির্বাচিত গণফোরামের সংসদ সদস্য সুলতান মনসুর ৭ মার্চ একাদশ জাতীয় সংসদের সদস্য হিসেবে শপথ নিয়েছেন।

গত ৩ মার্চ জাতীয় সংসদের স্পিকারের কাছে এক চিঠিতে ৭ মার্চ শপথ গ্রহণের আয়োজন করতে অনুরোধ করেন গণফোরামের দুই সংসদ সদস্য সুলতান মোহাম্মদ মনসুর (মৌলভীবাজার-২) ও মোকাব্বির খান (সিলেট-২)। তবে মোকাব্বির খান ‘অনিবার্য কারণবশত' শপথ নেননি।

sheikh mujib 2020