আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 29 মিনিট আগে

বান্দরবানে এক ট্রাক চালককে সাজা দেয়ার প্রতিবাদে পরিবহন ধর্মঘট ডেকেছে পরিবহন শ্রমিকেরা। আর এতে করে সোমবার বেলা ১১টা থেকে বান্দরবানের সাথে পার্শ্ববর্তী চট্টগ্রাম, কক্সবাজার ও রাঙ্গামাটি জেলার সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে।

bandarban paribahan

রোববার বিকেলে একটি কাঠবোঝাই ট্রাক বান্দরবান-কেরাণীহাট সড়কের রেইচা দিয়ে যাচ্ছিলো। সেখানে ট্রাকটি আলীকদম উপজেলা নির্বাহী অফিসারের গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষের উপক্রম হয়। ভুক্তভোগী নির্বাহী অফিসার সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. নোমান হোসেনকে জানায়। পরে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. নোমান হোসেন ওই ট্রাক চালককে গ্রেপ্তার করে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ১৫ দিনের কারাদণ্ড দেন।

এ ঘটনার জেরে আটককৃত ট্রাক চালকের মুক্তির দাবি করেন পরিবহন মালিক শ্রমিকেরা। পরে তারা বান্দরবান রুটের গাড়ি বন্ধ করে দেন।

বান্দরবান পরিবহন মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সভাপতি ঝন্টু কুমার দাশ বলেন, ‘আমাদের একজন ট্রাক চালককে রাস্তায় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ এনে আটক করা হয়। যদিও তিনি কোনো ধরনের শৃঙ্খলা ভঙ্গ করেননি।

তার কাছে ড্রাইভিং লাইসেন্স এবং গাড়ির কাগজ দুটোই ছিলো উল্লেখ করে এই শ্রমিক নেতা বলেন, ‘আমরা দ্রুত চালকের মুক্তি চাই এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসারের অপসারণ দাবি করছি।’

বান্দরবান সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. নোমান হোসেন বলেন, ‘ওই চালক বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালাচ্ছিলেন। সেজন্য তাকে সাজা দেওয়া হয়েছে।

স্বাভাবিক আইনে মামলা হলে তার দুই বছর জেল হত উল্লেখ করে উপজেলা কর্মকর্তা বলেন, ‘ড্রাইভার দোষ স্বীকার করে ক্ষমা চাওয়ায় তাকে ১৫ দিনের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।’

এদিকে গণপরিবহন বন্ধ থাকায় বান্দরবানের সাথে আশপাশের জেলা শহরগুলোর যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। সে কারণে এ রুটে যারা চলা-ফেরা করেন তারা অসহনীয় ভোগান্তিতে পড়েছেন।