আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 23 মিনিট আগে

দীর্ঘ ২৮ বছর পর অনুষ্ঠিত হওয়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদ অর্থাৎ ডাকসুর পক্ষ থেকে আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটে একটি আবেদন করা হয়েছে। তবে এই চিঠির ব্যাপারে তেমন কিছুই জানেন না ডাকসুর সহ-সভাপতি (ভিপি) কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা নুরুল হক নুর। ইনস্টিটিউটটিতে মূলত জুনিয়র সকল কোর্সের আবেদন ফি কমানোর দাবিতে এই আবেদন করা হয়েছিল।

letter from dakshu

বুধবার দেয়া চিঠিটিতে স্বাক্ষর করেছেন ডাকসু’র সাধারণ সম্পাদক (জিএস) ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী এবং ডাকসুর সহ সাধারণ সম্পাদক (এজিএস) ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন। চিঠিটিতে ভিপি নুরুল হক নুরের কোন স্বাক্ষর দেখা যায়নি। বিষয়টি নিয়ে অস্বস্তি দেখা গেছে সাধারণ ছাত্রদের মধ্যে।

চিঠির বিষয়টি ভিপি নুর অবগত নন বলেও জানিয়েছেন গণমাধ্যমকে। তিনি বলেন, 'ডাকসুর নামে দেয়া এমন কোনো চিঠির বিষয়ে আমি কিছু জানি না। তবে দাবির বিষয়টি অন্যের কাছে শুনেছি। আবেদন ফি কমানোর ব্যাপারেও আমার সমর্থন রয়েছে। তবে সেটা নিয়ে আলোচনা হতেই পারতো। আসলে আমার মনে হচ্ছে, এটি ডাকসুর নয়, চিঠিটি ছাত্রলীগের।'

আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটের পরিচালক বরাবর লেখা ওই চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, 'ইনস্টিটিউটটির জুনিয়র কোর্সের আবেদন ফি ৭০০ টাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়মিত শিক্ষার্থীদের পক্ষে বহন করা অনেকটাই কষ্টসাধ্য। অথচ বহিরাগতদেরও একই ফি দিতে হচ্ছে। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়মিত শিক্ষার্থীরা আলাদা কোন সুবিধাই পাচ্ছে না।'

তবে এমন চিঠিতে ভিপির নাম থাকে না বলে জানিয়েছেন ডাকসুর এজিএস এজিএস সাদ্দাম হোসেন। তিনি বলেন, 'আসলে এমন চিঠিতে ভিপির নাম থাকার বাধ্যবাধকতা নেই। ফলে সেটি দেয়া হয়নি। জিএস, এজিএসসহ সকলের মত রয়েছে। ভিপিরও দ্বিমত থাকার কথা নয়।'