advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 32 মিনিট আগে

অটিজম বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন ব্যক্তিরা যেন আর অবহেলার শিকার না হয় সেদিকে সমাজের প্রত্যেককে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘আমাদের সমাজে তাদের (অটিস্টিক ব্যক্তি) যোগ্য স্থান দিন... তারা আমাদের সন্তান, ভাই, বোন ও আত্মীয়। আপনাদের অবশ্যই এটি মনে রাখা উচিত।’

pm sheikh hasina at autism day 2019

মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) ১২তম বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্যকালে প্রধানমন্ত্রী এ আহ্বান জানান। এবারের অটিজম দিবসের প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘সহায়ক প্রযুক্তির ব্যবহার, অটিজম বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন ব্যক্তির অধিকার।’

অটিজম বৈশিষ্ট্য সম্পন্ন ব্যক্তিদের প্রতি সমাজের প্রত্যেককে আরও সহানুভূতিশীল ও দায়িত্বশীল হওয়ার আহ্বান জানান শেখ হাসিনা, যাতে তারা একটি সুন্দর জীবনযাপন করতে পারে।

অটিস্টিক ব্যক্তি বা শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা সমাজের বোঝা নয় উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা চাই যারা অটিস্টিক বা প্রতিবন্ধী, তারা যেন সমাজের বোঝা হয়ে না দাঁড়ায়। তাদের যেন কেউ বোঝা মনে না করে। তাদের অনেক প্রতিভা আছে, তারা আমাদের ওপর বোঝা নয়।’

শেখ হাসিনা উল্লেখ করেন, অটিস্টিক বা শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অধিকার রয়েছে। বিশেষ করে অক্ষম ব্যক্তিদের অধিকারসমূহ সঠিকভাবে রক্ষা করতে হবে। এ ব্যাপারে সমাজে জনসাধারণের সচেতনতা সৃষ্টির ওপর গুরুত্বারোপ করেন প্রধানমন্ত্রী।

অটিস্টিক ও শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধীদের সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসার জন্য ব্যবসায়ী ও শিল্পপতিসহ সমাজের ধনী ব্যক্তিদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন ‘যদি আপনারা তাদের জন্য চাকরি ব্যবস্থা করেন, তবে তাদের জীবন অর্থবহ হবে।’

তিনি বলেন, ‘প্রতিবন্ধী ব্যক্তির অধিকার ও সুরক্ষা আইন-২০১৩’ এবং ‘নিউরো-ডেভেলপমেন্টাল প্রতিবন্ধী সুরক্ষা ট্রাস্ট আইন-২০১৩’ দুটি আইন প্রণয়ন করেছে সরকার। এ সম্পর্কিত প্রয়োজনীয় বিধিও প্রণয়ন করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই আইনের অধীনে ২০১৪ সালে ‘নিউরো-ডেভেলপমেন্টাল প্রতিবন্ধী সুরক্ষা ট্রাস্ট’ গঠন করা হয়েছে। তিনি বলেন, বাবা-মা ও অভিভাবকহীন প্রতিবন্ধী মেয়েদের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৫০টি আসন এবং বগুড়ায় ছেলেদের জন্য ৫০টি আসনের নার্সিং সেন্টার স্থাপন করেছে সরকার। সম্ভব হলে দেশের আটটি বিভাগ ও সকল জেলায় পর্যায়ক্রমে এ ধরনের আশ্রয় স্থাপনের জন্য আমাদের পরিকল্পনা রয়েছে।

অটিস্টিক ব্যক্তিদের একটি ভাল জীবন নিশ্চিত করার জন্য ট্রাস্ট ও নার্সিং সেন্টারে অর্থ দান করার জন্য ধনী ব্যক্তিদের প্রতি অনুরোধ জানান প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ১০ লাখ শারীরিক প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের ৭০০ টাকা মাসিক ভাতা প্রদান করছে সরকার। এছাড়া নিম্ন আয়ের ৯০ হাজার প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের শিক্ষার জন্য মাসিক ৭০০ টাকা থেকে ১২০০ টাকা প্রদান করা হচ্ছে।

‘আগামী বাজেটে সকল শারীরিক প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের মাসিক ভাতা দেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে আমাদের,’ যোগ করেন প্রধানমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক, সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব জুয়েনা আজিজ।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী অটিস্টিক বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন সফল ব্যক্তি এবং অটিজম সচেতনতা কার্যক্রমে অবদান রাখা ব্যক্তিদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।

sheikh mujib 2020