advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 32 মিনিট আগে

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) ভিপি নূরুল হক নুর বলেছেন, ‘ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীদের হাতে আহত একজন শিক্ষার্থীর বিচার চাইতে গিয়েছিলাম। আমরা তার ন্যায় বিচার চেয়ে লিখিত অভিযোগ জানাতে গিয়েছিলাম। কিন্তু উল্টো আমদের ওপরই ছাত্রলীগের সন্ত্রাসী হামলা করেছে। তারা আমাদের অবরুদ্ধ করে লাঞ্চিত করেছে।’ সলিমুল্লাহ মুসলিম (এসএম) হলে হামলার পর মঙ্গলবার রাত ১ টায় তিনি এ সব কথা বলেন।

vp noor in front of vcs residence

এ সময় ভিপি নুর বলেন, ‘মূলত প্রশাসন অলিখিতভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ন্ত্রণ ছাত্রলীগকে দিয়ে দিয়েছে। ফলে পুরো বিশ্ববিদ্যালয় আজ ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীদের হাতে জিম্মি।’

সোমবার সন্ধ্যায় ছাত্রলীগের হামলার শিকার হন এক ছাত্র। তার বিচার দাবিতে মঙ্গলবার এসএম হলে যান ভিপি নুর ও কোটা সংস্কার আন্দোলনসহ অন্যান্য ছাত্র নেতৃবৃন্দ। এ সময় তাদের অবরুদ্ধ ও লাঞ্ছিত করা হয়।

এ ঘটনার জন্য এসএম হল ছাত্রলীগে সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও ডাকসুর হল সংসদের ভিপি, জিএসকে দায়ী করেন ভিপি নুর। তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘এ সব ছাত্রলীগ নেতাদের নেতৃত্বে আমাদের অবরুদ্ধ করা এবং লাঞ্ছিত করা হয়েছে। এ ঘটনার বিচার করতে হবে।’

ওই ঘটনায় জড়িতদের বহিষ্কার, বহিরাগতদের তাড়ানোসহ কয়েক দফা দাবিতে গতকাল রাত ৮টা থেকে ভিসির বাসভবনের সামনে অবস্থান নিয়েছে ভিপি নুরসহ কোটা সংস্কার আন্দোলনের শিক্ষার্থীরা। সকাল ৯টা পর্যন্ত তারা সেখানেই অবস্থান করেন। 

সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ভিপি নুর বলেন, ‘মেধা দিয়ে ছাত্ররা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছে। কিন্তু তারা মেধার যোগ্যতায় হলে ছিট পাচ্ছে না। বহিরাগত অছাত্ররা হলে থাকে। কিন্তু নিয়মিত শিক্ষার্থীরা হলে সিট পায় না। কারণ, ছাত্রলীগ জোর করে তাদের দিয়ে মিছিল, মিটিং করায়। তাই তাদের আজ্ঞাবহ না হলে ছিট মেলে না।’

দাবির বিষয়ে তিনি বলেন, ‘প্রত্যেক হল থেকে বহিরাগত অছাত্রদের তাড়াতে হবে, আমাদের ওপর হামলার বিচার করতে হবে, বোনদের লাঞ্চিত করার বিচার করতে হবে। এ সব দাবির ব্যাপারে দৃশ্যমান পদক্ষেপ না নেয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালবে।’

sheikh mujib 2020