advertisement
আপনি দেখছেন

মামলা প্রত্যাহারসহ কয়েকটি দাবিতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের একাংশের অবরোধের কারণে বিশ্ববিদ্যালয়গামী শাটল ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। আজ রোববার সকাল ৭টার দিকে শাটল ট্রেনের হোসপাইপ কেটে দেয় ছাত্রলীগ। একই সঙ্গে শাটল ট্রেনের চালককে ট্রেন থেকে নামিয়ে নিয়ে যায় তারা। অপরদিকে চট্টগ্রাম-ঢাকা রেল রুটও অবরোধ করেছে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। এতে করে চট্টগ্রাম থেকে ট্রেন চলাচলও বন্ধ হয়ে যায়।

chittagong university shuttle train

হাটহাজারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বেলাল উদ্দিন বলেন, গত কয়েকদিন ধরে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ ও হল থেকে অস্ত্র উদ্ধারের ফলে ছাত্রলীগ কর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা হয়। এ ঘটনায় তারা অবরোধের ডাক দেয়। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বিষয়টি দেখবেন বলেছেন। এরপরও তারা অবরোধ করেছে। আমরা তাদের শান্ত রাখার চেষ্টা করছি। ক্যম্পাসে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

এদিকে বিশ্ববিদ্যলয়ের জিরো পয়েন্টে প্রধান গেইটে তালা লাগিয়ে বিক্ষোভ করছে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা।

ছয় ছাত্রলীগ কর্মীর মুক্তি, নেতাকর্মীদের মামলা প্রত্যাহারসহ কয়েকটি দাবিতে চবি ছাত্রলীগের একাংশ এ অবরোধ কর্মসূচি পালন করছে।

অবরোধের কারণে দুর্ভোগে পড়েছে বিশ্ববিদ্যালয়গামী শিক্ষক ও হাজারো শিক্ষার্থী। এদিকে একঘন্টা পর শাটল ট্রেনের চালককে ছেড়ে দেয়া হলেও ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

ষোলশহর রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো জাকির হোসেন অবরোধের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এখানে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ। অবরোধের কারণে শাটল ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। ইউএনবি।