advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 32 মিনিট আগে

দীর্ঘ ২২ বছর পর কক্সবাজারের সেন্টমার্টিন দ্বীপে মহড়া দিয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। একইসাথে দ্বীপের বিভিন্ন এলাকায় টহল জোরদার করেছে বাহিনীটি। বিজিবি সূত্রে জানা গেছে, খুব শীঘ্রই দ্বীপে বর্ডার আউটপোস্ট (বিওপি) ক্যাম্প স্থাপন করা হবে।

bgb in saint martin

রোববার থেকে শুরু হওয়া এই মহড়ায় কোনো ধরনের ভারি অস্ত্র ব্যবহার করা হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন টেকনাফ ২নং বিজিবির অধিনায়ক (ভারপ্রাপ্ত) সরকার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান।

তিনি জানান, এতোদিন কোস্টগার্ড সদস্যরা সেন্টমার্টিনের সীমানা পাহাড়া দিতো। কিন্তু এবার সেন্টমার্টিনে বিজিবির একটি বিওপি স্থাপনের কার্যক্রম চলছে। তাই সেখানে টহল দিচ্ছে বিজিবি। প্রতিদিন বিজিবির সদস্যদের নিয়ে দ্বীপের বিভিন্ন এলাকায় মহড়া চলবে।

তবে বিভিন্ন গণ্যমাধ্যমে ভারি অস্ত্রের যে খবর এসেছে তা সঠিক নয় জানিয়ে ২নং বিজিবির অধিনায়ক বলেন, এটা নিয়মিত টহলের অংশ। স্বাভাবিকভাবেই টহল করছে বিজিবি। এ টহল চলমান থাকবে।

এই খবর নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রবিউল হাসান। তিনি বলেন, সীমান্ত সুরক্ষার জন্য কোস্টগার্ডের পাশাপাশি বিজিবিও কাজ করবে। তাই বিজিবি সেন্টমার্টিনে টহল শুরু করেছে। এতে করে সীমান্তে চোরাচালান, অবৈধ অনুপ্রবেশ সীমান্তের নানা অপরাধ দমনে অনেকটা সহায়ক হবে।

উল্লেখ্য, ১৯৯৭ সালের আগ পর্যন্ত সেন্টমার্টিন দ্বীপে তৎকালীন বিডিআর (বাংলাদেশ রাইফেলস) মোতায়েন ছিল। এরপর থেকে সেন্টমার্টিনে বাহিনীটির কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়।

sheikh mujib 2020