advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 59 মিনিট আগে

ফেনীর সোনাগাজীর মাদরাসা ছাত্রী নিহত নুসরাত জাহান রাফিকে পারিবারিক কবরস্থানে সমাহিত করা হবে। দাদির কবরের পাশেই তার শেষ শয্যা নির্ধারণ করা হয়েছে। নুসরাতের চাচা নুরুল হুদা জানান, পারিবারিক সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বৃহস্পতিবার বাদ আসর সোনাগাজী সাবের পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তার জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হবে। জানাজা শেষে দাদির কবরের পাশে তাকে সমাহিত করা হবে।

nusrat jahan rafi

এদিকে লাশের পোস্টমর্টেম শেষে দুপুরের আগেই পরিবারের কাছে নুসরাতের মরদেহ হস্তান্তর করা হবে বলে জানিয়েছেন ঢামেক বার্ন ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন। তিনি বলেন, 'এমন একটি বড় ঘটনা ঘটেছে। তাঁর লাশ পোস্টমর্টেম হবে’।

উল্লেখ্য, গত শনিবার (৬ এপ্রিল) সকাল ৯টার দিকে আলিম (এইচএসসি) পর্যায়ের আরবি প্রথম পত্র পরীক্ষা দিতে সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে যান ওই ছাত্রী। এরপর কৌশলে তাকে পাশের ভবনের ছাদে ডেকে নেওয়া হয়। ওই সময় বোরকা পরিহিত ৪-৫ জন ওই ছাত্রীর শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এতে তার শরীরের ৮৫ শতাংশ পুড়ে যায়।

শিক্ষার্থীর পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করেন, পরীক্ষার জন্য নির্ধারিত কক্ষ থেকে নুসরাতকে ছাদে ডেকে নিয়ে কয়েকজন বোরকাপড়া লোক পরিকল্পিতভাবে তার শরীরের কেরোসিন ঢেলে আগুল ধরিয়ে দেয়।

স্বজনদের অভিযোগ, মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজউদ্দৌলার বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগে দায়ের করা মামলা তুলে না নেয়ায় এ ঘটনা ঘটেছে।

গত শনিরাবর এই ছাত্রীকে আগুনে পুড়িয়ে দেয়ার পর প্রথমে সোনাগাজী ও ফেনী সদর হাসপাসতালে চিকিৎসা দেয়ার পর ওইদিনই তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয়। পাঁচদিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে বুধবার রাত সাড়ে ৯টায় মারা যান এই আলিম পরীক্ষার্থী। ইউএনবি।

sheikh mujib 2020