advertisement
আপনি দেখছেন

কওমি মাদ্রাসার অধিভুক্ত দাওরায়ে হাদিস (মাস্টার্স সমমান) পরীক্ষার প্রশ্নফাঁসের ঘটনায় পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে। শনিবার এক জরুরি বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেন সরকারি বোর্ড আল হাইয়াতুল উলইয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশ’র চেয়ারম্যান মাওলানা শাহ আহমদ শফী। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বোর্ডের কো-চেয়ারম্যান আল্লামা আশরাফ আলী।

the test of daoray hadith

জানা গেছে, গত কয়েক বছর ধরে দাওরায়ে হাদিস পরীক্ষার প্রশ্নফাঁসের ঘটনা ঘটছে। এবারও ফরিদাবাদ মাদরাসাসহ কয়েকটি স্থানে প্রশ্নফাঁসের খবর পাওয়া যায়। বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে শনিবার সকালে বোর্ডের জরুরি সভা আহ্বান করা হয়। এতে বাংলাদেশ কওমি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড বেফাকের মেশকাতের (ফজিলত) কেন্দ্রীয় পরীক্ষা বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

বৈঠক সূত্র জানায়, কওমি মাদ্রাসার এবারের তাকমিল হাদিস পরীক্ষা আগামী ২৩ এপ্রিল থেকে ৩ মে পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে।

বৈঠকে মুফতি মুহাম্মদ ওয়াক্কাস, মাওলানা নুর হোসাইন কাসেমী, মুফতি রুহুল আমিন, মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস, মুফতি ফয়জুল্লাহ, মাওলানা শামসুদ্দিন জিয়া, মাওলানা মাহফুজুল হক, মাওলানা সাজিদুর রহমানসহ বোর্ডের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, আল হাইয়াতুল উলইয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশ’র অধীনে দাওরায়ে হাদিস পরীক্ষা গত ৮ এপ্রিল থেকে শুরু হয়। আগামী ১৮ এপ্রিল এ পরীক্ষা শেষ হওয়ার কথা ছিল। এবার ছয়টি শিক্ষাবোর্ডের অধীনে ২৬ হাজার ৭২১ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছেন।