আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 01 মিনিট আগে

লক্ষ্মীপুরের সিটি হাসপাতালে মাত্র পাঁচ মাসের মাথায় জন্ম নেয়া সাত নবজাতকের সবাই মারা গেছে। হাসপাতালের ডাক্তাররা জানান, নির্দিষ্ট সময় হওয়ার আগেই নবজাতকরা জন্ম নেয়। তাই তাদের বাঁচানো সম্ভব হয়নি। মৃত্য নবজাতকদের মধ্যে চারটি মেয়ে ও তিনটি ছেলে।

baby dead

জানা গেছে, পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা নাজমা আক্তারের প্রসব ব্যথা উঠলে শুক্রবার বিকালে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে রাত ১১টার দিকে স্বাভাবিকভাবেই একসঙ্গে সাতটি সন্তানের জন্ম দেয়। নাজমা লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার লাহারকান্দি গ্রামের পাটোয়ারী বাড়ির প্রবাসী মো. রাজুর স্ত্রী।

হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক আবদুল্লাহ নওশের গণমাধ্যমের কাছে নবজাতকদের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, 'বাচ্চাদের স্বাভাবিক বয়স না হওয়ার তাদের বাঁচানো যায়নি।'

এর আগে তাদেরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেলের শিশু বিভাগে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়। তবে ঢাকায় যাওয়ার প্রস্ততিকালীন সময়েই শিশুদের মৃত্যু হয়। তবে প্রসূতি মা ভালো আছেন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

এদিকে নবজাতক মৃত্যুর পর পরিবারের লোকজন তাৎক্ষণিকভাবে মরদেহ বাড়ি নিয়ে গেছেন। নাজমা আক্তারের মা শাহেদা বেগম জানান, বাচ্চাদের ঢাকায় নেয়ার প্রস্তুতি চলছিলো। কিন্তু এর মধ্যেই তারা মারা গেছে। তবে তাদের মা সুস্থ আছেন।