advertisement
আপনি দেখছেন

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেছেন, রাজনীতি করতে গিয়ে যারাই সন্ত্রাস ও দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়বে, তাদের কেউ রেহাই পাবে না। সে যেই হোক তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। শনিবার রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজিত আওয়ামী যুবলীগের সপ্তম কংগ্রেসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

pm sheikh hasina newপ্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা

যুবলীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে দেশে শুদ্ধি অভিযান চালানো হচ্ছে। সন্ত্রাস ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে। এর সাথে কেউ জড়িত থাকলে তার বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির আওতায় আনা হবে।

তিনি বলেন, ক্ষমতা ভোগের জন্য আওয়ামী লীগের জন্ম হয় নাই। জন্ম হয়েছে দেশের মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য। মানুষ যেন দুমুঠো খেয়ে ভালোভাবে জীবনযাপন করতে পারে সে জন্য দেশ স্বাধীন করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, ‘দেশের মানুষের জন্য কাজ করি বলেই ১০ বছরে অনেক দিয়েছি। যারা ২৯ বছর রাষ্ট্র চালিয়েছে তারা কি দিতে পেরেছে? জনগণকে কিছু দিতে হলে দেশকে ভালোবাসতে হয়। যারা দেশের স্বাধীনতা বিশ্বাস করে না তারা দেশকে কিছু দিতে পারে না।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, পদ্মা সেতু নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ আনা হয়েছে। কিছু লোক আমেরিকায় গিয়ে নালিশও করেছিল। নোবেল প্রাইজ পাওয়া একজন লোক ব্যাংকের এমডি পদের জন্য উঠেপড়ে লেগেছিল। কিন্তু কোনো দুর্নীতি প্রমাণ করতে পারেনি। উল্টো খালেদা জিয়া ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে দুর্নীতি খুঁজে পেয়েছিল।

শেখ হাসিনা বলেন, দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। কেউ আর এ দেশের অগ্রগতি রুখতে পারবে না। ২০৪১ সালের মধ্যে দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম উন্নত-সমৃদ্ধশীল দেশে পরিণত হবে বাংলাদেশ।

এর আগে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও বেলুন উড়িয়ে কংগ্রেসের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।