advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 32 মিনিট আগে

জন্মভূমিতে বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে না নিতে মিয়ানমার অপপ্রচার চালাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে বাংলাদেশ। রোববার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ ব্যাপারে একটি বিবৃতি দিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছে।

rohinga burma foreinministryবাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা

বিবৃতিতে বলা হয়, মিয়ানমারকে অবশ্যই বাংলাদেশের বিরুদ্ধে অযৌক্তিক অপপ্রচার বন্ধ করতে হবে। রোহিঙ্গাদের নিয়ে মনগড়া তথ্যের সমাবেশ, অপব্যবহার ও অসমর্থিত দাবি প্রত্যাহার করে নিতে হবে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ১৫ই নভেম্বর মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিল কার্যালয়ের এক মুখপাত্র রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে দ্বিপক্ষীয় ব্যবস্থাকে অকার্যকর করতে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে উদ্যোগ নেয়। পাশাপাশি গণহত্যায় জড়িতদের জবাবদিহিতা নিয়ে তারা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উদ্যোগের কড়া সমালোচনা করেছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়, মিয়ানমারের নিয়মতান্ত্রিক বঞ্চনা ও ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের ওপর বর্বর নির্যাতনের ফলে রোহিঙ্গা সংকট তৈরি হয়। তাই এ সংকট দীর্ঘায়িত করার জন্য মিয়ানমার ব্যতিত অন্য কারোর-ই দায়বদ্ধ হওয়া উচিত নয়। প্রত্যাবাসন বিলম্বিত করায় বাংলাদেশের কোনো আগ্রহ নেই।

এর আগে চলতি বছরের আগস্টে মিয়ানমারের কর্মকর্তাদের সঙ্গে রোহিঙ্গা নেতাদের কয়েকবার বৈঠক হয়। সেখানে রোহিঙ্গারা স্পষ্ট জানিয়ে দেয় নিরাপত্তা, নাগরিকত্ব, চলাফেরার স্বাধীনতা, মৌলিক সেবা ও জীবিকা নির্বাহসহ মূল বিষয়গুলোর আশ্বাস পেলেই তারা স্বেচ্ছায় জন্মভূমিতে ফিরে যাবে। অন্যথায় তারা প্রত্যাবাসন করতে অস্বীকৃতি জানায়।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, প্রত্যাবাসনের অনুকূল পরিবেশ তৈরি করা মিয়ানমারের দায়িত্ব। বাংলাদেশ চায় রোহিঙ্গারা তাদের জন্মভূমিতে নিরাপদে ফিরে যাক। এজন্য বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের স্বেচ্ছায় ফিরে যেতে উৎসাহিত করার সম্পূর্ণ দায়িত্ব মিয়ানমারের। কিন্তু তারা সে দায়বদ্ধতা পালনে সম্পূর্ণ ব্যর্থ।

sheikh mujib 2020