advertisement
আপনি দেখছেন

বহুল আলোচিত হলি আর্টিজানে হামলা মামলার রায়ে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, এ রায়ে সরকার সন্তুষ্ট। আজ সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলার সময় জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সরকারের অবস্থানের কথা পরিষ্কার করেন মন্ত্রী।

holey artisan accusedপুলিশের সাথে গুলশানে হলি আর্টিজান ক্যাফেতে সন্ত্রাসী হামলার রায়ে দণ্ডপ্রাপ্তরা

২০১৬ সালের ১ জুলাই ওই ক্যাফেতে সশস্ত্র জঙ্গিরা হামলা চালিয়ে ১৭ বিদেশিসহ ২২ জনকে হত্যা করে। এ ঘটনায় সাত জঙ্গির মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনাল।

অভিযুক্তদের মধ্যে একজনকে খালাস দেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে মন্তব্য করার আগে মন্ত্রী হক বলেন, সে কিভাবে খালাস পেল তার জাজমেন্ট দেখবেন।

একজন আসামি জঙ্গি সংগঠন আইএসের টুপি পরে কীভাবে আদালতে এসেছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এই জবাব কি আমি দিতে পারি? তারপরও বলছি এ বিষয়ে তদন্ত করা হবে। আমি মনে করি এটি তদন্ত হওয়া উচিত। আমি প্রেস কনফারেন্স শেষে করেই এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলব।’

law minister anisul 1

রায় বাস্তবায়ন সম্পর্কে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, রায় ঘোষণার পরই ডেথ রেফারেন্স সাত দিনের মধ্যে সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট ডিভিশনে চলে যায়। ‘আশা করছি দ্রুত পেপারবুক তৈরি হয়ে যাবে। যথা সময়েই রায় কার্যকর হবে,’ বলেন তিনি। 

আজ ওই জঙ্গি হামলা মামলার রায়ে আট অভিযুক্তের সাত আসামিকে মৃত্যুদণ্ড এবং একজনকে খালাস দিয়েছেন আদালত। 

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজিব গান্ধি, মাহমুদুল হাসান মিজান, সোহেল মাহফুজ, রাশিদুল ইসলাম ওরফে রায়াশ, হাদিছুর রহমান সাগর, মামুনুর রশিদ রিপন ও শরিফুল ইসলাম খালেদ। ইউএনবি।